মমতা সরকার ফেলার ষড়যন্ত্রের অভিযোগ, দৈনিক জাগরণের বিরুদ্ধে এফআইআর। এরিয়া ম্যানেজার এবং ব্যুরো চিফকে তলব লালবাজারে

মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সরকারের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র এবং হিন্দুত্ববাদী সংগঠনকে কাজে লাগিয়ে রাজ্যে অশান্ত সৃষ্টির চেষ্টার অভিযোগে হিন্দি সংবাদপত্র দৈনিক জাগরণের এরিয়া ম্যানেজার সঞ্জয় প্রতাপ সিংহের বিরুদ্ধে এফআইআর করল কলকাতা পুলিশ। ১৬ এপ্রিল, সোমবার জিজ্ঞাসাবাদের জন্য তাঁকে লালবাজারে ডেকে পাঠানো হয়েছে। পাশাপাশি আগামী ১৮ এপ্রিল, বুধবার লালবাজারে তলব করা হয়েছে দৈনিক জাগরণ পত্রিকার রাঁচির ব্যুরো চিফকেও। নির্দিষ্ট অভিযোগের ভিত্তিতে ইতিমধ্যেই দৈনিক জাগরণ কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে তদন্ত শুরু করেছে কলকাতা পুলিশের ডিটেকটিভ ডিপার্টমেন্ট। সম্প্রতি আসানসোলে গোষ্ঠী সংঘর্ষের ঘটনাতেও দৈনিক জাগরণ কর্তৃপক্ষের কোনও ষড়যন্ত্র আছে কিনা পুলিশ খতিয়ে দেখছে।

সম্প্রতি ওয়েব নিউজ পোর্টাল cobrapost.com স্টিং অপারেশন ১৩৬ প্রকাশ করে। নিউজ পোর্টালটির দাবি, তাদের সাংবাদিক পুষ্প শর্মার গোপন ক্যামেরায় দৈনিক জাগরণ পত্রিকার এরিয়া ম্যানেজার সঞ্জয় প্রতাপ সিংহ জানান, পশ্চিমবঙ্গে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সরকার ফেলতে টাকার বিনিময়ে তাঁরা খবর প্রকাশ করতে রাজি আছেন। শুধু তাই নয়, রাজ্যের হিন্দু এলাকায় কীভাবে গণ্ডগোল বাঁধাতে হবে পুষ্প শর্মাকে সেই পরামর্শও দেন বহুল প্রচারিত হিন্দি সংবাদপত্র দৈনিক জাগরণের এরিয়া ম্যানেজার।

গত ২৬ মার্চ cobrapost.com অপারেশন ১৩৬ প্রকাশ করে। দেশের বিভন্ন রাজ্যের একাধিক সংবাদপত্রের গুরুত্বপূর্ণ পদে থাকা আধিকারিকদের গোপন ক্যামেরায় স্টিং অপারেশন করেন সাংবাদিক পুষ্প শর্মা। ওয়েব নিউজ পোর্টালটির দাবি, তাদের সাংবাদিক পুষ্প শর্মা দৈনিক জাগরণের এরিয়া ম্যানেজারকে প্রশ্ন করেন, ‘মমতার সরকার ভাঙার জন্য কী স্ট্র্যাটেজি হতে পারে?’ গোপন ক্যামেরার সামনে জবাবে সঞ্জয় প্রতাপ সিংহ, কম মুসলমান থাকেন এমন জায়গায়, হিন্দু হোল্ডওয়ালা এলাকায় নানা কার্যকলাপের পরামর্শ দেন। গোটা দেশেই এমন একাধিক সংবাদপত্রের গুরুত্বপূর্ণ আধিকারিকদের গোপন টেপ রেকর্ডিং প্রকাশ করেছে cobrapost.com, যেখানে তাঁরা টাকার বিনিময়ে হিন্দুত্ব ভাবধারা প্রকাশের কথা স্বীকার করেছেন।

গত ২৬ মার্চ এই অপারেশন ১৩৬ সামনে আসার পরই দেশজুড়ে আলোড়ন সৃষ্টি হয়। প্রশ্ন ওঠে সংবাদমাধ্যমের ভূমিকা নিয়ে। গত ১০ এপ্রিল জনৈক গোপাল দাস নামে এক ব্যক্তি কালীঘাট থানায় দৈনিক জাগরণের এরিয়া ম্যানেজার সঞ্জয় প্রতাপ সিংহের
নাম রাজ্যে অশান্তি ছড়ানো এবং ষড়যন্ত্রের অভিযোগ দায়ের করেন। এই অভিযোগের ভিত্তিতে সঞ্জয় প্রকাশ সিংহের নামে এফআইআর দায়ের করে কালীঘাট থানা। সঙ্গে সঙ্গে মামলার তদন্তভার নেয় লালবাজারের ডিটেকটিভ ডিপার্টমেন্ট। কলকাতা পুলিশ সূত্রের খবর, ১৬ এপ্রিল, সোমবার সঞ্জয় প্রতাপ সিংহকে লালবাজারে সমন করা হয়েছে। পাশাপাশি ওই দিনই গোটা ঘটনা জানার জন্য cobrapost.com এর সাংবাদিক পুষ্প শর্মাকেও ডাকা হয়েছে লালবাজারে। তার দুদিন বাদে ডাকা হয়েছে হিন্দি দৈনিকের ব্যুরো চিফকে।

Comments
Loading...