‘রাহুল গান্ধীর শরীরে বোমা বেঁধে অন্য দেশে পাঠানো উচিত’, ফের বিতর্কিত মন্তব্য বিজেপির পঙ্কজা মুণ্ডের

এর আগে বলেছিলেন জিতে ফিরলে বদলাবে সংবিধান। এবার সরাসরি বিরোধী নেতাকে বোমা বেঁধে অন্য দেশে পাঠানোর নিদান দিলেন বিজেপি নেত্রী পঙ্কজা মুণ্ডে।

গত ২১শে এপ্রিল মহারাষ্ট্রের জালনা লোকসভা কেন্দ্রে নির্বাচনী প্রচারে গিয়ে কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধীর বিরুদ্ধে এই মন্তব্য করেন পঙ্কজা মুণ্ডে। মহারাষ্ট্রের নারী ও শিশু কল্যাণ মন্ত্রী বলেন, বালাকোটে এয়ার স্ট্রাইকের প্রমাণ চাওয়ায়, রাহুল গান্ধীর শরীরে বোমা বেঁধে অন্য দেশে পাঠিয়ে দেওয়া উচিত। সভা থেকে পঙ্কজা মুণ্ডের ঘোষণা, আমাদের সেনার ওপর কাপুরুষোচিত হামলার জবাবে এয়ার স্ট্রাইক চালিয়েছিল ভারতীয় সেনা। কিন্তু বিরোধী নেতারা সেই এয়ার স্ট্রাইকের প্রমাণ চাওয়ায় তীব্র ক্ষোভ প্রকাশ করেন প্রয়াত গোপীনাথ মুণ্ডের কন্যা। এরপরেই তাঁর মন্তব্য, ‘রাহুল গান্ধীর শরীরে বোমা বেঁধে অন্য দেশে পাঠিয়ে দেওয়া উচিত।’
পুলওয়ামায় সিআরপিএফ কনভয়ে ফিদায়েঁ হামলার জবাবে গত ২৬ শে ফেব্রুয়ারি পাকিস্তানের বালাকোটে এয়ার স্ট্রাইক করে ভারতীয় সেনা। যদিও, এই অভিযানে ঠিক কতজন জঙ্গি নিহত হয়েছেন এখনও তার কোনও পরিসংখ্যান দেয়নি কেন্দ্র। নির্বাচনী জনসভায় বিভিন্ন বিজেপি নেতার মুখে শোনা গিয়েছে এক এক রকম পরিসংখ্যান। সম্প্রতি বিদেশমন্ত্রী সুষমা স্বরাজ জানিয়েছেন, অপারেশন বালাকোটে কোনও পাকিস্তানি নাগরিক বা পাক সেনার মৃত্যু হয়নি। এয়ার স্ট্রাইকের সত্যতা নিয়ে বারবার প্রশ্ন তুলেছে বিরোধীরা। এই প্রেক্ষিতেই কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধীকে নিয়ে এই বিতর্কিত মন্তব্য করেন পঙ্কজা মুণ্ডে। বিজেপি মন্ত্রী যখন এই মন্তব্য করেন, ওই সভায় উপস্থিত ছিলেন মহারাষ্ট্রের মুখ্যমন্ত্রী দেবেন্দ্র ফড়নবিশ ও বিজেপির রাজ্য সভাপতি তথা জালনা কেন্দ্রের বিজেপি প্রার্থী দানভে রাওসাহেব দাদারাও।
প্রাক্তন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী তথা মহারাষ্ট্রের বিজেপি নেতা প্রয়াত গোপীনাথ মুণ্ডের কন্যা, ক’দিন আগেই এক নির্বাচনী জনসভায় দেশের সংবিধান পরিবর্তনের নিদান দিয়ে বিতর্কে তৈরি করেছিলেন। তবে এনিয়ে এখনও কোনও অভিযোগ দায়ের হয়নি।

Comments
Loading...