প্যানডেমিক ঘোষণার পর এক মাসে করোনা আক্রান্ত ১ লক্ষ ১৮ হাজার থেকে বেড়ে ১৭ লক্ষ

করোনার মারণ থাবায় আক্রান্ত গোটা বিশ্ব। এরই মধ্যে এই ভাইরাসকে প্যানডেমিক ঘোষণা করার পর থেকে দেখতে দেখতে কেটে গেল এক মাস।
জন হপকিংস বিশ্ববিদ্যালয়ের তৈরি করা ডেটাবেস অনুযায়ী, এখনও পর্যন্ত গোটা বিশ্বে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন প্রায় ১৭ লক্ষ মানুষ। প্রাণ হারিয়েছেন ১ লক্ষেরও বেশি। এছাড়াও প্রায় ৩ লক্ষ ৮০ হাজার মানুষ এই ভাইরাসের প্রকোপ থেকে ধীরে ধীরে সেরে উঠেছেন।
পরিসংখ্যান বলছে, গত মার্চ মাসের ১১ তারিখ এই ভাইরাসকে প্যানডেমিক ঘোষণা করে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা বা ‘হু’। যখন এই প্যানডেমিক ঘোষণা করা হয়, তখন সারা বিশ্বে করোনায় আক্রান্ত মানুষের সংখ্যা ছিল ১ লক্ষ ১৮ হাজার। আর এই ঘোষণার পর থেকে এক মাসে লাফিয়ে লাফিয়ে বেড়েছে এই ভাইরাসে আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা। যা এই মুহূর্তে প্রায় ১৭ লক্ষ।
এই ভাইরাসের উৎসস্থল চীন হলেও এই মুহূর্তে দাঁড়িয়ে অনেকটাই ঘুরে দাঁড়িয়েছে তারা। এই বছরের জানুয়ারি মাস থেকেই ধীরে ধীরে এই ভাইরাসের প্রকোপ থেকে সেরে উঠতে শুরু করেছে চিন। গত ১৮ মার্চ, যখন গোটা পৃথিবীর মানুষ এই ভাইরাসে জর্জরিত, তখন থেকে চিনে নতুন করে করোনা আক্রান্তের কোনও খবর পাওয়া যায়নি ও এই মুহূর্তে কোনও মৃত্যুর খবরও নেই সেই দেশ থেকে। তবে চিন থেকে এই ভাইরাস ইউরোপ ও তারপর মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে তার মারণ কামড় বসিয়েছে। বিশেষত স্পেন, ইতালি, ফ্রান্স ও জার্মানিতে এই ভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা সবচেয়ে বেশি।
এই মুহূর্তে সারা বিশ্বের মধ্যে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে এই করোনা ভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা সবচেয়ে বেশি। ৫ লক্ষেরও বেশি মানুষ এই ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছে সেই দেশে। এবং ইতালির পর সব থেকে বেশি মানুষ প্রাণ হারিয়েছেন সেখানে। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা অনুযায়ী মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র এই ভাইরাসের ‘এপিসেন্টার’ হয়ে উঠবে আগামী দিনগুলোতে।

Comments
Loading...