Corona: দেশে আক্রান্ত ৬ হাজার ছাড়াল, ৮৪ শতাংশই ১০ রাজ্যে! ৮ রাজ্যে আক্রান্তের সংখ্যায় দ্বিগুণ বৃদ্ধি ২-৪ দিনে

দেশে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ছাড়িয়েছে ৬ হাজার। যে ১০ রাজ্যে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা সবচেয়ে বেশি, তার ৮ টিতে গত ২-৪ দিনের মধ্যে আক্রান্তের সংখ্যা দ্বিগুণ হয়েছে।
রাজ্যভিত্তিক তথ্য অনুযায়ী, দেশের ৮৪ শতাংশ করোনা আক্রান্ত মহারাষ্ট্র, তামিলনাড়ু, দিল্লি, তেলেঙ্গানা, কেরল, রাজস্থান, উত্তরপ্রদেশ, অন্ধ্রপ্রদেশ, মধ্যপ্রদেশ ও কর্ণাটকের বাসিন্দা।

 

কোন রাজ্যে কী পরিস্থিতি? 

সরকারি তথ্য অনুযায়ী বুধবার পর্যন্ত দেশে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ছিল ৫ হাজার ১৯৪ জন। যার মধ্যে ৪ হাজার ৩৪৭ জনই এই ১০ রাজ্যের। তার মধ্যে শুধু কেরল ও কর্ণাটক ছাড়া বাকি ৮ রাজ্যে এপ্রিলের প্রথম সপ্তাহের কয়েক দিনে আক্রান্তের সংখ্যা প্রায় দ্বিগুণ হয়েছে।
গত রবিবার স্বাস্থ্য মন্ত্রক জানিয়েছিল, ৪.১ দিনে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা দ্বিগুণ হয়েছে দিল্লির নিজামুদ্দিনের তাবলিঘি জামাতের জমায়েতের জন্য। যদিও ২ এপ্রিল থেকে ৪ এপ্রিলেই রাজধানীতে কোভিড-১৯ আক্রান্তের সংখ্যা দ্বিগুণ হয়ে যায়। কেন্দ্রের তথ্য বলছে, এপ্রিলের ২ তারিখ দিল্লিতে করোনা পজিটিভ ছিল ২২৩ জনের। আর ৪ এপ্রিল তা গিয়ে দাঁড়ায় ৪৪৭ এ।
মহারাষ্ট্র, তেলেঙ্গানা ও উত্তরপ্রদেশে ৩ দিনে করোনা আক্রান্ত দ্বিগুণ হয়েছে। ৪ এপ্রিল মহারাষ্ট্রে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ছিলেন ৪৯৮ জন। ৭ এপ্রিলে তা পৌঁছছে ১,০১৮ তে।
তেলেঙ্গানায় ৩ এপ্রিল আক্রান্তের সংখ্যা ছিল ১৬১ এবং ৬ এপ্রিল তা গিয়ে দাঁড়ায় ৩৩২ এ। উত্তরপ্রদেশে গত ২ এপ্রিল করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ছিল ১১৪ এবং ৫ তারিখে তা হয় ২৩১।

 

কেরল ও কর্নাটকে আক্রান্তের হার কমেছে 

গত কয়েকদিনে নতুন করে দক্ষিণের দুই রাজ্যে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা সামনে এলেও, গত সপ্তাহে কিছুটা শ্লথ হয়েছে আক্রান্তের গতি। গত কয়েক দিনে ৭০ জন আক্রান্ত সুস্থ হয়েছেন কেরলে।
স্বাস্থ্য মন্ত্রক বলছে, ১০ রাজ্যে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা যেমন বেশি, টেস্টিং-এর সংখ্যাও বাড়ানো হয়েছে। প্রতি ১০ লক্ষে দেশে যখন গড়ে ৮২.৬ জনের করোনা টেস্ট হচ্ছে, তখন দিল্লিতে দু’দিনে প্রতি ১০ লক্ষে গড়ে ৫১০ জন, কেরলে ৩৪০ জনের করোনা টেস্ট হয়েছে।

Comments
Loading...