সেরে ওঠার পর একই ব্যক্তির দ্বিতীয়বার করোনা সংক্রমণ! হংকং বিশ্ববিদ্যালয়ের দাবি ঘিরে তোলপাড়

বিশ্বে প্রথম করোনা রিইনফেকশনের প্রমাণ পাওয়া গেল হংকংয়ে! করোনা থেকে সেরে ওঠার পর আবার সংক্রমিত হতে পারেন বলে আশঙ্কা বিশেষজ্ঞদের।

কোভিড ১৯ থেকে সুস্থ হয়ে ওঠা ব্যক্তিরা ফের সংক্রমিত হতে পারেন। হংকংয়ে এমন ঘটনার কথা জানা গিয়েছে। হংকং বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষকদের দাবি, তাঁরাই প্রথম এমন সংক্রমণ শনাক্ত করেছেন এবং প্রমাণ দিচ্ছেন।

জানা গিয়েছে, এক ৩৩ বছর বয়সী আইটি কর্মী গত এপ্রিল মাসে করোনা সংক্রমিত হন এবং তারপর সুস্থ হয়ে ওঠেন তিনি। কিন্তু চারমাসের মধ্যে দ্বিতীয়বার সংক্রমণ ধরা পড়েছে তাঁর শরীরে। কয়েকদিন আগে ইউরোপ সফর সেরে হংকংয়ে ফেরেন ওই ব্যক্তি। হংকং এয়ারপোর্টের স্ক্রিনিংয়ে ধরা পড়েছে তিনি ফের করোনা সংক্রমিত।

করোনা ‘রিইনফেকটেড’ ওই ব্যক্তির শরীরে এখন ভিন্ন একটি ‘স্ট্রেইন’ এর ভাইরাসের উপস্থিতি মিলেছে বলে জানাচ্ছেন গবেষকরা। জেনেটিক বিশ্লেষণে দেখা গেছে ওই হংকংবাসী দ্বিতীয়বার করোনাভাইরাসের ভিন্ন একটি স্ট্রেইনে সংক্রমিত হয়েছেন। তথ্যপ্রযুক্তি সংস্থায় কর্মরত ওই ব্যক্তি দ্বিতীয়বার অবশ্য করোনার কোনও উপসর্গই বুঝতে পারেননি। গবেষকরা বলছেন দ্বিতীয় সংক্রমণ মৃদু ছিল। তবে যে ব্যাপারটা ভাবাচ্ছে, তা হল করোনার রিইনফেকশন। সুস্থ হয়ে ওঠার কয়েক মাস পর যে করোনা রোগী আবার সংক্রমিত হতে পারেন, তার নির্দিষ্ট প্রমাণ পাওয়া গিয়েছে বলে দাবি করেছেন হংকং বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষকরা।

বিশেষজ্ঞরা জানাচ্ছেন, করোনাভাইরাস বিশ্বজুড়ে ছড়ানোর মাঝেই প্রতিনিয়ত বিবর্তিত হচ্ছে। যা জেনেটিক সিকোয়েন্সিংয়ে ধরা পড়েছে। হংকং বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষকরা সতর্ক করেছেন এতে প্রমাণ হয় যে, সুস্থ হওয়ার কয়েক মাসের মধ্যেই যে কেউ নতুন করে করোনায় সংক্রমিত হতে পারেন। তাঁরা জানান, এমনটা সম্ভব কারণ, সুস্থ হওয়া ব্যক্তিদের দেহে করোনাভাইরাসের বিরুদ্ধে সৃষ্ট প্রতিরোধ ক্ষমতা স্বল্পস্থায়ী। করোনা প্রতিরোধকারী অ্যান্টিবডি দ্রুত শেষ হয়ে যায়!

দ্বিতীয়বার সংক্রমিত হলেও ওই হংকংবাসীর মধ্যে তেমন কোনও উপসর্গ দেখা যায়নি। এ থেকে ধারণা করা হচ্ছে প্রথমবার সুস্থ হওয়ায় তাঁর শরীরে কিছু পরিমাণ প্রতিরোধ ক্ষমতা বিদ্যমান ছিল। যার কারণে, তার উপসর্গ গুরুতর হয়নি। কিন্তু বিশেষজ্ঞদের মত, দ্বিতীয়বার ভাইরাসের উপস্থিতি টের না পেলেও তা অজান্তেই শরীরে বড় ক্ষতি করে দিতে পারে।

এখন প্রশ্ন উঠছে,

দ্বিতীয়বার সংক্রমিত হওয়া কোনও ব্যক্তির কাছ থেকে সংক্রমণ ছড়াতে পারে? 

বিশেষজ্ঞরা জানাচ্ছেন, হতে পারে। কোভিড ওয়ারিয়র যদি দ্বিতীয়বার সংক্রমণের শিকার হন তবে তাঁর সংস্পর্শে আসা কোনও সুস্থ ব্যক্তিও সংক্রমিত হতে পারেন।

 

প্রথমবার করোনা হওয়ার কতদিন পর আবার কোভিডে সংক্রামিত হতে পারেন কেউ? 

চিনা গবেষকরা জানাচ্ছেন, কোভিডজয়ীর শরীরে অ্যান্টিবডি তৈরি হওয়ার চার, পাঁচ, ছয় সপ্তাহ এমনকী এক বছর পরেও ফের ঘুরে আসতে পারে SARS-CoV-2।

বিশ্বজুড়ে করোনায় দ্বিতীয়বার সংক্রামিত হওয়ার খবর অনেক আগেই শোনা যাচ্ছিল। তবে তার নিশ্চিত প্রমাণ ছিল না এতদিন। অনেকে মনে করেছিলেন, পরীক্ষার ভুল ফলাফলেও (ফলস নেগেটিভ) এমনটি হয়ে থাকতে পারে। অথবা দেহে ভাইরাসের কোনও নিষ্ক্রিয় কণা থেকে যেতে পারে যা পরীক্ষায় ধরা পড়েনি। এবার হংকংয়ের গবেষকরা বলছেন, করোনা রিইনফেকশনের প্রথম হাতেগরম প্রমাণ তাঁরা দিলেন।

Comments
Loading...