ICMR-NICED এর বিরুদ্ধে নিম্ন মানের কিট সরবরাহের অভিযোগ রাজ্যের, করোনা পরীক্ষায় দেরি নিয়ে জবাব স্বাস্থ্য দফতরের

করোনাভাইরাস মহামারি রোখার পথ নিয়ে কেন্দ্র-রাজ্য চাপানউতোর তুঙ্গে। কিট সরবরাহ নিয়ে কেন্দ্রীয় সংস্থার অভিযোগের পর এবার সরাসরি রাজ্য স্বাস্থ্য দফতরের নিশানায় ICMR-NICED।
রবিবার পরপর ট্যুইট করে ICMR-NICED এর বিরুদ্ধে নিম্ন মানের কিট সরবরাহের অভিযোগ করল রাজ্য স্বাস্থ্য দফতর। তাদের অভিযোগ, নিম্নমানের কিটের জেরে বিপুল সংখ্যায় অসম্পূর্ণ রিপোর্ট আসছে। নতুন করে ফের করতে হচ্ছে টেস্ট। তাতেই দেরি হচ্ছে।
টেস্ট রিপোর্ট পেতে দেরি হচ্ছে কেন? সম্প্রতি তা নিয়ে বিতর্ক শুরু হয় সোশ্যাল মিডিয়ায়। ক্রমশ তা হয়ে ওঠে রাজনৈতিক হাতিয়ার। এবার তারই জবাব দিল রাজ্য স্বাস্থ্য দফতর। রবিবার রাতে পরপর ৫ টি ট্যুইট করে অভিযোগ খণ্ডন করেছে স্বাস্থ্য দফতর।
স্বাস্থ্য দফতর অভিযোগ করে, ২ সপ্তাহ আগে ICMR-NICED যে টেস্টিং কিট পাঠিয়েছিল, তাতে বিপুল সংখ্যায় অসম্পূর্ণ রিপোর্ট এসেছে। ফলে সেই টেস্টগুলো আবার নতুন করে করতে হচ্ছে। স্বভাবতই দেরি হচ্ছে চূড়ান্ত রিপোর্ট পেতে।

ট্যুইট করে রাজ্যের স্বাস্থ্য দফতর দাবি করেছে, কেবলমাত্র রাজ্যের সরকারি পরীক্ষাগারগুলোই যে এই সমস্যায় পড়ছে তাই নয়, দেশের অন্যান্য নমুনা পরীক্ষাগারেও একই অবস্থা। বিভিন্ন জায়গায় তাঁরা এ বিষয়ে মতামতও দিয়েছেন।

পাশাপাশি স্বাস্থ্য দফতর অভিযোগ করে, আগে যখন পুণের ন্যাশনাল ইন্সস্টিটিউট অফ ভাইরোলজি থেকে সরাসরি কিট পাঠানো হত তখন এই সমস্যা ছিল না। সম্প্রতি বাংলার সরকারি ল্যাবগুলোতে কলকাতার ICMR-NICED মারফৎ কিট পাঠানো হচ্ছে।

শেষ ট্যুইটে স্বাস্থ্য দফতর অভিযোগ করেছে, কলকাতার ICMR-NICED আপাতভাবে ত্রুটিপূর্ণ টেস্ট কিট পাঠানোর জেরে প্রচুর পরিমাণে পুনঃপরীক্ষা করতে হচ্ছে, এর ফলে দেরি হচ্ছে। যখন আমরা মহামারির বিরুদ্ধে লড়াই করছি, তখন এভাবে অযথা সময় নষ্ট হচ্ছে। অবিলম্বে ICMR কে এ বিষয়ে পদক্ষেপ নেওয়ার আবেদনও জানানো হয়েছে।

করোনাভাইরাস মহামারি মোকাবিলা করতে গিয়ে কার্যত নাজেহাল অবস্থা গোটা বিশ্বের। মারণ এই ভাইরাসের থাবা এসে পড়েছে ভারতেও। এই পরিস্থিতিতে নমুনা পরীক্ষার কিট নিয়ে সম্মুখ-সমরে কেন্দ্র-রাজ্য।

Comments
Loading...