দায়িত্বজ্ঞানহীন, অর্থহীন রাজনৈতিক তরজা শহিদ সেনাদের সম্মান দেয় না, সেনা মৃত্যুর পর সংবাদমাধ্যমের ভূমিকা নিয়ে মন্তব্য দিনেশ ত্রিবেদীর

লাদাখে চিন-ভারত সীমান্তে সেনা সংঘর্ষে ২০ ভারতীয় সেনার মৃত্যুতে শোকের ছায়া দেশজুড়ে। মৃত সেনাদের প্রতি শ্রদ্ধা ও সম্মান জানিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি। সেনাদের বলিদান ব্যর্থ হবে না বলে শোকপ্রকাশ করেছেন প্রধানমন্ত্রী।
এবার এই ইস্যুতে দেশের সংবাদমাধ্যমের ভূমিকা নিয়ে প্রশ্ন তুললেন তৃণমূল সাংসদ দীনেশ ত্রিবেদী। এনডিটিভিতে সম্প্রচারিত খবরের একটি অংশকে তুলে ধরে বুধবার সন্ধ্যায় ট্যুইট করলেন তৃণমূল সাংসদ।
ট্যুইটে দীনেশ ত্রিবেদী লেখেন, আমরা দেশের সেনাদের সম্মান করি, গোটা দেশ সেনাবাহিনীর পিছনে রয়েছে। কিন্তু সংবাদমাধ্যমে প্রচারিত দায়িত্বজ্ঞানহীন, অর্থহীন রাজনৈতিক তরজা শহিদ সেনাদের উপযুক্ত সম্মান দেয় না। ট্যুইটে এনডিটিভিতে সম্প্রচারিত একটি খবরের একাংশ তুলে ধরেন তিনি।

গত কয়েকদিন ধরেই চিন-ভারত সীমান্ত এলাকায় লাদাখে দু’দেশের সেনার মধ্যে উত্তেজনা চলছে। বেনজির পরিস্থিতি তৈরি হয় সোমবার রাতে। মুখোমুখি সংঘর্ষে ২০ ভারতীয় সেনার মৃত্যু হয়েছে। চিনের ৪৩ জন সেনা হতাহত হয়েছে বলে এএনআই সূত্রে খবর।
আগেও একাধিক তৃণমূল নেতা বিভিন্ন ইস্যুতে সংবাদমাধ্যমের সমালোচনা করয়েছেন। এমনকী আমপান বিপর্যয়ের খবরও জাতীয় সংবাদমাধ্যম ভালো করে প্রচার করেনি বলে অভিযোগ করেছিলেন খোদ মমতা ব্যানার্জি। সাংসদ মহুয়া মৈত্র একাধিকবার বিতর্কে জড়িয়েছেন জি টিভি এবং রিপাবলিক টিভির সঙ্গে। কিন্তু দেশের প্রাক্তন রেলমন্ত্রী এবং বর্তমানে রাজ্যসভার সাংসদ দীনেশ ত্রিবেদীর সংবাদমাধ্যমের সমালোচনা নজিরবিহীন। যদিও সম্প্রতি একাধিক ক্ষেত্রে রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়ের সমালোচনায় সরব হয়েছেন তিনি। বুধবার রাতে দীনেশ ত্রিবেদীর করা এই ট্যুইটটি অবশ্য লাইক করেছেন ধনখড়।

Comments
Loading...