জামিন পেলেন উত্তরপ্রদেশের গোরক্ষপুরের চিকিৎসক কাফিল খান। পরিবার সূত্রে জানানো হয়েছে, সোমবার আলিগড়ের জেলা আদালত তাঁর জামিন মঞ্জুর করেছে। উল্লেখ্য, প্রায় দু’সপ্তাহ পুলিশ হেফাজতে থাকার পর তিনি জামিন পেলেন। সপ্তাহ দুয়েক আগে তাঁকে মুম্বই বিমানবন্দর থেকে গ্রেপ্তার করেছিল উত্তরপ্রদেশ পুলিশ। তাঁর বিরুদ্ধে অভিযোগ ছিল, তিনি এনআরসি ও নাগরিকত্ব আইন বিরোধী আন্দোলনে নেমে উস্কানিমূলক ভাষণ দিয়েছেন আলিগড় মুসলিম বিশ্ববিদ্যালয়ে। তাঁর বিরুদ্ধে উত্তরপ্রদেশ পুলিশ ভারতীয় দণ্ডবিধির ১৫৩ এ ধারায় মামলা  করেছিল। পুলিশের অভিযোগে বলা হয়, বিভিন্ন গোষ্ঠী এবং সম্প্রদায়ের মধ্যে বৈষম্য এবং পারস্পরিক শত্রুতা তৈরি করতে চাইছেন কাফিল খান। অভিযোগে আরও বলা হয়েছে, কাফিল খান কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহের বিরুদ্ধেও অবমাননাকর মন্তব্য করেছেন।
পুলিশের আরও অভিযোগ ছিল, রাষ্ট্রীয় স্বয়ংসেবক সংঘ পরিচালিত স্কুলে নাকি শেখানো হয় যে দাড়িওয়ালা লোকেরা সবাই সন্ত্রাসবসদী, এমনটাও বলেছেন কাফিল খান।
উল্লেখ্য, ওই চিকিৎসক কাফিল খান প্রথম সংবাদ শিরোনামে আসেন ২০১৭ সালে উত্তরপ্রদেশের গোরক্ষপুরে বাবা রাঘবদাস মেডিক্যাল কলেজ এবং হাসপাতালে অক্সিজেনের অভাবে ৬৭ টি শিশুর মৃত্যুর ঘটনায়। এই ঘটনায় উত্তরপ্রদেশ সরকার এবং হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে প্রকাশ্যে অবহেলা ও দুর্নীতির অভিযোগ করেছিলেন কাফিল। এর পর তাঁকে হাসপাতাল থেকে সাসপেন্ড করা হয়। পুলিশ গ্রেফতার করে তাঁকে। কাফিলকে জেলেও থাকতে হয় নয় মাস। পরে তিনি জামিন পান। যদিও গত অক্টোবর মাসে তাঁর বিরুদ্ধে ফের মামলা করে যোগী আদিত্যনাথের সরকার।

ধারাবাহিকভাবে পাশে থাকার জন্য The Bengal Story র পাঠকদের ধন্যবাদ। আমরা শুরু করেছি সাবস্ক্রিপশন অফার। নিয়মিত আমাদের সমস্ত খবর এসএমএস এবং ই-মেইল এর মাধ্যমে পাওয়ার জন্য দয়া করে সাবস্ক্রাইব করুন। আমরা যে ধরনের খবর করি, তা আরও ভালোভাবে করতে আপনাদের সাহায্য আমাদের উৎসাহিত করবে।

Login Subscribe

You may also like

Nirbhaya