কাশ্মীরের জন্য পৃথক সংবিধানে দেশের সার্বভৌমত্ব লঘু হয়েছে, ডোভালের মন্তব্যে বিতর্ক

সম্প্রতি নির্বাচিত সরকারের পতনের পর যখন উপত্যকায় লাগাতার গণ্ডগোল, সংঘর্ষ এবং উত্তেজনার পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে, তার মধ্যেই কাশ্মীর নিয়ে এক মন্তব্যে বিতর্ক আরও উস্কে দিলেন জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা অজিত ডোভাল। বুধবার ডোভাল এক অনুষ্ঠানে বলেন, জম্মু-কাশ্মীরের জন্য ভিন্ন সংবিধান করার কোনও মানে নেই এবং তা বিভ্রান্তিমূলক। তা দেশের সার্বভৌমত্বেরও পরিপন্থী।
সংবিধানের ৩৭০ ধারায় কাশ্মীরের জন্য কিছু বাড়তি সুযোগ-সুবিধে দেওয়া হয়েছে। দীর্ঘদিন ধরেই বিজেপি এই ৩৭০ ধারা তুলে দেওয়ার দাবি জানিয়ে আসছে। কেন্দ্রীয় সরকারও এর অবলুপ্তিরই পক্ষে। এরই মধ্যে জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টার এদিনের মন্তব্য এই বিষয়ে বিতর্ক আরও উস্কে দিল। বিরোধীরা বলতে শুরু করেছে, এটা কি আসলে কেন্দ্রেরই বক্তব্য, যা জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা বললেন! ডোভালের এদিনের মন্তব্যের বিরোধিতা করেছে মেহবুবা মুফতির দল পিডিপি। কাশ্মীরের বিভিন্ন সংগঠনও সরব হয়েছে এই বিষয় নিয়ে।
বুধবার সর্দার বল্লভভাই প্যাটেলের ওপর একটি বই প্রকাশ অনুষ্ঠানে দোভাল বলেন, ভারতের সংবিধানের মূল উদ্দেশ্য ছিল দেশের সর্বভৌমত্ব রক্ষা করা, যা গোটা দেশের ক্ষেত্রেই প্রযোজ্য। কিন্তু জম্মু কাশ্মীরের ক্ষেত্রে তার ব্যতিক্রম ঘটেছে। স্বাধীনতার সময় দেশের বিভিন্ন অঙ্গ রাজ্যের আলাদা আলাদা আইন ছিল। কিন্তু দেশের সার্বভৌমত্বের জন্য সংবিধান সবার জন্য এক করা হয়, যা কাশ্মীরের ক্ষেত্রে মানা হয়নি। এতে দেশের সার্বভৌমত্ব লঘু হয়েছে।

Comments
Loading...