২২ বছরের পুরনো মামলায় মোদী বিরোধী গুজরাতের বরখাস্ত আইপিএস অফিসার সঞ্জীব ভাট গ্রেফতার

২২ বছরের পুরনো এক মামলায় গ্রেফতার হলেন গুজরাতের বরখাস্ত আইপিএস অফিসার সঞ্জীব ভাট। বুধবার গুজরাত সিআইডি সঞ্জীব ভাটকে গ্রেফতার করে। ২২ বছর আগে এক আইনজীবীকে গ্রেফতার করা এবং তাঁর কাছে মাদক সামগ্রী বাজেয়াপ্ত করার এক মামলায় এদিন সকাল থেকে সঞ্জীব ভাটকে জেরা করছিল সিআইডি। প্রসঙ্গত, দীর্ঘদিন ধরেই এই বিতর্কিত আইপিএস অফিসার নরেন্দ্র মোদী এবং গুজরাত প্রশাসনের লাগাতার সমালোচনা করে আসছিলেন। শুধু তাই নয়, ২০১২ সালে তাঁর স্ত্রী আহমেদাবাদের মণিনগর কেন্দ্র থেকে গুজরাতের তৎকালীন মুখ্যমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর বিরুদ্ধে বিধানসভা ভোটেও লড়েছিলেন।
১৯৯৬ সালে গুজরাতের বনসকণ্ঠা জেলার পুলিশ সুপার ছিলেন সঞ্জীব ভাট। অভিযোগ, সেই সময় সুমেরসিংহ রাজপুরোহিত নামে এক আইনজীবীকে ওই জেলার পুলিশ গ্রেফতার করে। তাঁর কাছে মাদক দ্রব্য পাওয়া গিয়েছে বলেও দাবি করেছিল পুলিশ। পরে তদন্তে জানা যায়, মাদক রাখার যে মামলা ওই আইনজীবীর বিরুদ্ধে করা হয়েছিল তা ঠিক নয়। এই ঘটনা নিয়ে পরবর্তীকালে গুজরাত হাইকোর্টে মামলাও হয়। আদালতই এই ঘটনায় সিআইডি তদন্তের নির্দেশ দেয়। সেই ঘটনায় এদিন বনসকন্ঠা জেলার সেই সময়কার এসপি সঞ্জীব ভাটকে সিআইডি গ্রেফতার করল।
২০০২ সালে গুজরাত দাঙ্গার সময় থেকেই বারবার বিতর্কে জড়িয়েছেন এই আইপিএস অফিসার। চাকরি করার সময়ই বারবার সমালোচনা করেছেন গুজরাতে নরেন্দ্র মোদী সরকারের। ২০১৫ সালে কেন্দ্রীয় সরকার তাঁকে ‘কর্মস্থলে অনুপস্থিতি’র কারণে চাকরি থেকে বহিষ্কার করে। সম্প্রতি সঞ্জীব ভাট পতিদার নেতা হার্দিক প্যাটেলের সঙ্গেও দেখা করেন।

Comments
Loading...