দুর্গাপুজো নিয়ে হোয়াটসঅ্যাপে ছড়াচ্ছে ভুয়ো সরকারি নির্দেশিকা! ক্ষিপ্ত মুখ্যমন্ত্রী, আইনি পদক্ষেপ পুলিশের

এবার দুর্গাপুজোয় সারারাত ঘুরে প্রতিমা দর্শন বন্ধ! ‘পঞ্চমী থেকে একাদশী, বিকেল পাঁচটার পর থেকে নাইট কার্ফু’। করোনা পরিস্থিতিতে দুর্গাপুজো নিয়ে রাজ্য সরকারের ‘নির্দেশিকা’ বলে দাবি করে গত কয়েকদিন ধরে হোয়্যাটসঅ্যাপে এমন মেসেজ চালাচালি হচ্ছিল। যা একদম ভুয়ো বলে জানিয়ে দিল রাজ্য পুলিশ। মঙ্গলবার রাজ্য পুলিশের সোশ্যাল মিডিয়া হ্যান্ডেল থেকে স্পষ্ট জানিয়ে দেওয়া হল, দুর্গাপুজো নিয়ে এমন কোনও সিদ্ধান্ত হয়নি। তাই এই নির্দেশিকা গুজব ছাড়া আর কিছু নয়। মঙ্গলবার নবান্নে এ বিষয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি।

তিনি বলেন, সবকটাকে ধরে ১০০ বার কান ধরে ওঠবোস করাতে হবে। ভুয়ো খবর ছড়ানোর সব সীমা ছাড়িয়ে গেছে। ওরা যদি প্রমাণ করে এমন কোনও নির্দেশ সরকার দিয়েছিল তাহলে আমি কান ধরে ওঠবোস করব, মন্তব্য ক্ষুব্ধ মমতার।

পশ্চিমবঙ্গ রাজ্য পুলিশের ফেসবুক ও ট্যুইটার হ্যান্ডেল থেকে এই নির্দেশিকার একটি ছবি পোস্ট করা হয়। তার ওপর বড় অক্ষরে লাল কালিতে লেখা রয়েছে ‘ফেক’। ছবির সঙ্গে পুলিশের তরফে লেখা হয়েছে, ‘দুর্গাপুজো নিয়ে হোয়াটসঅ্যাপে এই গুজবটি ছড়াচ্ছে। এ রকম কোনও সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়নি। দয়া করে মেসেজটি ফরোয়ার্ড করবেন না। এটি মিথ্যা।’

সেই ছবিতে পুজো সংক্রান্ত একাধিক ‘নিয়ম’ দেখা গিয়েছে। যার মধ্যে রয়েছে, সারারাত ঘুরে ঠাকুর দেখা যাবে না। পঞ্চমী থেকে একাদশী পর্যন্ত বিকেল পাঁচটা থেকে ভোর চারটে পর্যন্ত নাইট কারফিউ জারি থাকবে। মণ্ডপে একসঙ্গে পাঁচজনের বেশি প্রবেশ করা যাবে না এবং প্রত্যেকের থার্মাল স্ক্রিনিং হবে। অষ্টমীর অঞ্জলিতে ফুল দেওয়া যাবে না। প্রতিমা নিরঞ্জনের সময় শোভাযাত্রা বন্ধ রাখার মতো নির্দেশও আছে।

পুলিশের তরফে জানানো হয়েছে, দুর্গাপুজো সংক্রান্ত আপাতত এরকম কোনও সিদ্ধান্ত নেয়নি প্রশাসন। হোয়াটসঅ্যাপে এই ভুয়ো মেসেজ ছড়ানোয় যারা যুক্ত, তাদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে বলে হুঁশিয়ারি দিয়েছে পুলিশ।

Comments
Loading...