ফেক ‘বিবিসি’র ওপিনিয়ন পোলে রাজস্থানে ক্ষমতায় আসছে বিজেপি, খবর alt news সূত্রে

রাজস্থান বিধানসভা নির্বাচনে ব্রিটিশ সংবাদসংস্থা ‘বিবিসি’র নাম করে ফেক ওয়েবসাইটে প্রকাশিত ওপিনিয়ন পোলকে কেন্দ্র করে তোলপাড় সোশ্যাল মিডিয়া। এই ওপিনিয়ন পোল সম্পূর্ণ মিথ্যে এবং ভিত্তিহীন বলে খবর প্রকাশিত হয়েছে ভারতের নিউজ পোর্টাল ‘alt news’এ।

কয়েক মাস ধরেই রাজস্থান বিধানসভা নির্বাচনের জন্য করা একটি ‘ওপিনয়ন পোল’ এর রিপোর্ট সোশ্যাল মিডিয়ায় আলোচ্য বিষয় হয়ে দাঁড়িয়েছে। ব্রিটিশ ব্রডকাস্টিং কর্পোরেশন বা ‘বিবিসি’ এর এই পেজে রাজস্থান বিধানসভা ভোটে আগাম গণনা প্রকাশ করা হয়েছে। চলতি বছরের জুন মাসের ওপিনিয়ন পোলে বলা হয়েছিল, রাজস্থানের বিধানসভা নির্বাচনে ১৬০ এর বেশি আসন লাভ করবে কংগ্রেস এবং মাত্র ৩০ টি আসন পাবে বিজেপি। এরপর, বিবিসি’র নামে ওই ওয়েবসাইটে ২৮ শে নভেম্বর একটি ওপিনিয়ন পোলের ফল ঘোষণা করা হয়। যেখান বলা হয়েছে, বিজেপি ১৩৫ এর বেশি আসনে জিতবে রাজস্থানে। ২৮ শে নভেম্বরের পোস্টটি ভাইরাল হয় সোশ্যাল মিডিয়ায়। ফেসবুক ও ট্যুইটারে প্রচুর শেয়ার হয় এই পোলের ফলাফল। সোশ্যাল মিডিয়ায় এই পোস্টটি নিয়ে নিয়ে আলোড়ন পড়ে যায়। যেহেতু ‘বিবিসি’র নাম রয়েছে, তাই এর গ্রহণযোগ্যতা তৈরি হয়। ‘লাইক’ এবং ‘কমেন্টের’ ঝড় ওঠে।
বিবিসি’র এই ওপিনিয়ন পোল আদৌ ঠিক কিনা তা নিয়ে ৩০ শে নভেম্বর শুক্রবার একটি সংবাদ প্রকাশিত হয় ভারতের নিউজ পোর্টাল ‘alt news’এ।
‘alt news’এর সংবাদে বলা হয়েছে, বিষয়টি নিয়ে তারা ‘বিবিসি’র দৃষ্টি আকর্ষণ করেছে। ‘বিবিসি’ ‘alt news’কে জানিয়েছে, রাজস্থানের বিধানসভা নির্বাচন নিয়ে এমন কোনও ওপিনিয়ন পোল বা সমীক্ষা তারা তৈরি বা প্রকাশ করেনি। শুধু তাই নয়, ভারতের কোনও নির্বাচনে বিবিসি ‘প্রি-ইলেকশন সার্ভে’ করে না বলেও জানিয়েছে তারা। ‘বিবিসি’র মুখপাত্র জানান, রাজস্থান ভোটের আগে এই ওপিনিয়ন পোল তারা তৈরি মোটেই তৈরি করেনি। ফেসবুক, হোয়াটসঅ্যাপ, ফেসবুক এবং ট্যুইটারে ‘বিবিসি’র নাম করে ভুয়ো সার্ভে করা হয়েছে। এর কোনও দায়বদ্ধতা নেই বিবিসির।
এর আগে বহুবার বিভিন্ন বিতর্কিত বিষয়ে ভুয়ো খবর ছড়িয়েছে সোশ্যাল মিডিয়ায়। তাতে বারবার মানুষ বিভ্রান্তও হয়েছেন। এই বছরেরই মে মাসে কর্ণাটকের বিধানসভা নির্বাচনের আগে ‘জন কি বাত’ নামে একটি সার্ভে সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়। তখনও সার্ভেটি ‘বিবিসি’র বলে দাবি করা হয়েছিল। ‘alt news’ তার সত্যতাও বিচার করে। দেখা যায়, সেটিও একটি ভুয়ো সার্ভে, যা ‘বিবিসি’র নাম করে প্রচার করা হয়েছিল। চলতি বছরের সেপ্টেম্বর মাসে ‘বিবিসি’র নাম করে একটি ভুয়ো ওয়েবসাইটে বিশ্বের সবচেয়ে দুর্নীতিগ্রস্ত দলগুলির একটি তালিকা প্রকাশিত হয়। সেই তালিকায় কংগ্রেসকে দ্বিতীয় স্থানে রাখা হয়েছিল।
প্রসঙ্গত, ২০১৬ সালে এরাজ্যে বিধানসভা নির্বাচনের আগেও এমনই একটি সমীক্ষা প্রকাশিত হয়েছিল ‘বিবিসি’র নাম করে। পরে জানা গিয়েছিল, সেটিও ভুয়ো। পশ্চিমবঙ্গে এমন কোনও সমীক্ষা বিবিসি করেনি। সাম্প্রতিক কালে বারবার বিভিন্ন ভুয়ো সমীক্ষায় যে নির্বাচনী ফলাফল প্রকাশিত হয়েছে, দেখা গিয়েছে তার সবকটিতেই জেতানো হয়েছে বিজেপিকে। সেখানেই উঠছে প্রশ্ন।

Comments
Loading...