জাল নোট ও বেআইনি অস্ত্র কারবারের বড় চক্র এসটিএফের জালে, হদিশ অস্ত্র কারখানার

জাল নোট এবং বেআইনি অস্ত্র কারবারীদের এই বড় চক্রকে ধরল কলকাতা পুলিশের স্পেশাল টাস্ক ফোর্স (এসটিএফ)। সোমবার এসটিএফের অফিসাররা কলকাতা ময়দান থানা এলাকার অর্ন্তগত মনোহর দাস তরাগের কাছ থেকে গ্রেফতার করেন তিন জনকে। ধৃতরা হল সুকু শেখ, মহম্মদ আমজাদ রায়েন ও মহম্মদ আবদুল্লা। এদের মধ্যে সুকু সেখ মালদহের বাসিন্দা। বাকি দুই অভিযুক্তের বাড়ি বিহারে।

সূত্রের খবর, ধৃতদের কাছ থেকে জাল ৫০০ টাকা নোটে এক লাখ টাকা বাজেয়াপ্ত করা হয়েছে। পাশাপাশি তাদের কাছ থেকে ৪০ টি বন্দুকও উদ্ধার করে পুলিশ। এই গ্রেফতারির সূত্র ধরে সন্ধান মিলেছে অবৈধ অস্ত্র কারখানার।

সূত্রের খবর, ধৃত মহম্মদ আবদুল্লাকে লাগাতার জেরা করে জগদ্দল থানা এলাকার ছোট শ্রীরামপুরে হদিশ মেলে এক বেআইনি অস্ত্র কারখানার। জগদ্দল থানা এলাকার ছোট শ্রীরামপুরে ওই অস্ত্র কারখানার। সিটের সদস্যরা এরপর হানা দেন ব্যারাকপুরের ওই অস্ত্র কারখানায়। সেই সময় সেখানে হানা দিয়ে ওই কারখানায় কর্মরত ছয় কর্মীকে গ্রেফতার করেছে এসটিএফ। ধৃতরা হল মহম্মদ সাবির রায়েন, মহম্মদ সৌদ আলম ওরফে সনু, মহম্মদ শাহনাওয়াজ, মহম্মদ ফয়সল, মহম্মদ রাজি ওরফে রাজু এবং মহম্মদ চাঁদ। ধৃতরা সকলেই বিহারের মুঙ্গেরের বাসিন্দা। ওই কারখানা থেকে বিপুল অস্ত্র বাজেয়াপ্ত করেছেন তদন্তকারী দলের সদস্যরা। এর মধ্যে রয়েছে ২০টি আধা সমাপ্ত বন্দুক, দুটি ড্রিলিং মেশিনসহ প্রচুর অস্ত্র তৈরির সামগ্রী। মঙ্গলবার ধৃতদের চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেটের আদালতে পেশ করা হয়।

Comments
Loading...