নয়া কৃষি আইনের বিরুদ্ধে আন্দোলনরত এক কৃষক ফের আত্মঘাতী

ফের এক কৃষকের আত্মঘাতীর খবর প্রতিবাদের স্পৃহাকে ত্বরান্বিত করল।

ফের দিল্লি সীমান্তে ৫২ বছরের এক কৃষক আত্মহত্যা করলেন। এর পূর্বে কেন্দ্রের ‘বিতর্কিত’ নয়া কৃষি আইনের প্রতিবাদে বহু কৃষক আত্মঘাতীর শিকার হয়েছেন, এবার যুক্ত হল আরও একজন। কৃষি আইন প্রতিবাদের আগেও কয়েক জন কৃষকের আত্মহত্যার ঘটনা সামনে এসেছিল।

গত বছরের শেষের দিকে দিল্লির লাগোয়া সীমানায় তিন কৃষি আইন বাতিলের জন্য আন্দোলনে সামিল হয়ে দেশের কৃষকেরা। শীত-বৃষ্টিকে উপেক্ষা করে প্রতীজ্ঞারত হয়ে আন্দোলনকে চালিয়ে নিয়ে চলেছেন তাঁরা। নয়া কৃষি আইন বাতিল না হলে আন্দোলন চলবে বলে হুঁশিয়ারি দিয়েছেন কৃষক নেতারা। এরই মধ্যে ফের এক কৃষকের আত্মঘাতীর খবর প্রতিবাদের স্পৃহাকে ত্বরান্বিত করল।

এর আগে, গত শনিবার সীমান্তবর্তী কৃষকেরা ‘চাক্কা জ্যাম’ কর্মসূচির ডাক দিয়েছিলেন। ‘চাক্কা জ্যাম’ কর্মসূচির শেষে কেন্দ্রের উদ্দেশে কৃষক নেতা রাকেশ তিকাইত কড়া সুরে বলেছেন, “২ অক্টোবর পর্যন্ত সময়। তার মধ্যে আইন প্রত্যাহার না করা হলে কৃষকরা অন্য রাস্তা বেছে নেবেন। ঘোষণা করা হবে পরবর্তী কর্মসূচি।”

অন্যদিকে, ১১ বার সরকারের সঙ্গে কৃষক নেতাদের বৈঠক বিশেষ কোনো সুরাহা মেলেনি। নয়া কৃষি আইন বাতিলের দাবিতে অনড় কৃষক গোষ্ঠী। কিন্তু সেই দাবির পরিবর্তে সরকারের সঠিক কোনো প্রস্তাবনা মেলেনি এখনও।

Comments
Loading...