প্রথম দফা ভোটের আগে গোলমালের আশঙ্কা, কমিশনে তথ্য দিয়ে অভিযোগ তৃণমূলের

নন্দীগ্রামে বহিরাগত গুণ্ডাদের এনেছে বিজেপি। অভিযোগ জানিয়ে নির্বাচন কমিশনে তৃণমূল। শুক্রবার মুখ্য নির্বাচনী আধিকারিকের অফিসে যান তৃণমূল প্রতিনিধিরা৷ অভিযোগ, নন্দীগ্রামে বেশ কিছু বাড়িতে গুণ্ডারা জড়ো হয়ে শান্তি নষ্ট করার চেষ্টা করছে ৷ এছাড়াও খেজুরি, পটাশপুরে হামলা চালানো হচ্ছে তৃণমূল সমর্থকদের ওপর। প্রতিনিধি দলে রয়েছে তৃণমূলের রাজ্যসভার দলনেতা ডেরেক ও’ব্রায়েন ও সাংসদ কাকলী ঘোষদস্তিদার।

তাঁদের বক্তব্য, তৃণমূল শান্তিপূর্ণভাবে নির্বাচন চায়৷ কিন্তু বিজেপি বাইরে থেকে গুণ্ডা এনে অশান্তি করতে চাইছে। কেন্দ্রীয় বাহিনীকে এখানে যথাযথ ভাবে ব্যবহার করা হচ্ছে না৷ সেই সুযোগেই গুণ্ডারা ঢুকে পড়েছে৷ বিজেপি সমর্থকদের বাড়িতে ঘাঁটি গেড়েছে তারা। ১ এপ্রিল নন্দীগ্রামে ভোটের দিন এই বহিরাগত গুণ্ডাদের দিয়ে বিজেপি গন্ডোগোল করাতে পারে বলেও অভিযোগ করা হয়েছে তৃণমূলের তরফে৷ এছাড়াও পূর্ব মেদিনীপুরের নন্দীগ্রাম ছাড়াও পটাশপুর, খেজুরি, এগরায় তাঁদের সমর্থকদের ওপর হামলা চালানো হচ্ছে বলেও অভিযোগ জানানো হয়।

উল্লেখ্য, শুক্রবার পশ্চিমমেদিনীপুরে তিনটি জনসভা করেন মুখ্যমন্ত্রী। সেখানে তিনি  অভিযোগ করেন, কাঁথি বাসস্ট্যান্ড থেকে ৩০ জন সশস্ত্র দুষ্কৃতিকে গ্রেফতার করা হয়েছে। ধৃতরা প্রত্যেকেই উত্তরপ্রদেশের বাসিন্দা। তিনি বলেন, প্রমাণ হয়ে গেছে বাইরের গুন্ডারা বাংলায় ঢুকছে। এমনকি বহিরাগত গুন্ডারা কাদের বাড়িতে আশ্রয় নিয়েছে তাও জানেন তিনি। মমতার কথায়, মীর্জাফররা বহিরাগত গদ্দারদের নিয়ে আসছে। কিন্তু তাতে কোনও লাভ নেই। সবাইকে দেখে রেখেছি। পালানোর পথ পাবে না।

Comments
Loading...