কলকাতাসহ গোটা রাজ্যে আগামী ৭২ ঘন্টা মাঝারি থেকে অতি ভারি বৃষ্টির পূর্বাভাষ।

অবশেষে ঝমঝমিয়ে টানা বর্ষার বৃষ্টি শুরু হল কলকাতাসহ রাজ্যজুড়ে। সোমবার সকাল থেকেই কলকাতা ও সংলগ্ন অঞ্চলের আকাশ ছিল মেঘলা। সকাল সাড়ে আটটা নাগাদ আকাশ কালো করে মুষলধারে বৃষ্টি শুরু হয় গোটা শহরে। সঙ্গে ঘন-ঘন মেঘের গর্জন। ঘণ্টাখানেকের টানা বৃষ্টিতে জল জমে যায় শহরের বেশ কিছু জায়গায়। দিনের এই ব্যস্ত সময়ে ঝমঝমিয়ে বৃষ্টি নামায় অফিস-কাছারি, স্কুল-কলেজসহ প্রয়োজনীয় গন্তব্যে যেতে বেশ বেগ পেতে হয় সাধারণ মানুষকে। দিনের বেলাতেই জ্বলে ওঠে শহরের বিভিন্ন প্রান্তের রাস্তার আলো,গাড়ির হেডলাইট। রাস্তায় যেন ছাতার মিছিল। সকাল ১১টা নাগাদ বৃষ্টির তেজ কিছুটা কমলেও, সোমবার প্রায় সারাদিন ধরেই নাগাড়ে বৃষ্টি হয়েছে কলকাতায়। আবহাওয়া দফতর জানিয়েছে, বঙ্গোপসাগরে সৃষ্ট ঘূর্ণাবর্তের জেরেই এই বৃষ্টি। যা সক্রিয় করেছে মৌসুমি বায়ুকে। আগামী দু’দিন কলকাতায় ভারি বৃষ্টি হতে পারে বলে আলিপুর আবহাওয়া দফতর জানিয়েছে। বঙ্গোপসাগরে সৃষ্ট ঘূর্ণাবর্ত ইতিমধ্যেই নিম্নচাপের রূপ নিয়েছে বলেও আবহাওয়া দফতর সূত্রে খবর। এর জেরে কলকাতার পাশাপাশি দক্ষিণবঙ্গের প্রায় সব জেলাতেই আগামী কয়েকদিন বৃষ্টির পূর্বাভাষ রয়েছে।
কেন্দ্রীয় আবহাওয়া দফতরের তরফে প্রকাশিত বুলেটিনে বলা হয়েছে, আগামী তিন দিন ভারি থেকে অতি ভারি বৃষ্টি হতে পারে গাঙ্গেয় পশ্চিমবঙ্গের জেলাগুলিতে। বুধ ও বৃহস্পতিবার উত্তরবঙ্গের হিমালয় পাদদেশ সংলগ্ন এলাকাগুলিতে ভারি থেকে অতি ভারি বৃষ্টির সতর্কতা জারি করেছে কেন্দ্রীয় আবহাওয়া অফিস। সোমবার নদীয়ায় বাজ পড়ে তিন জনের মৃত্যুর খবর পাওয়া গেছে।
ভারি থেকে অতি ভারি বৃষ্টির জন্য যাতে কোনও অপ্রীতিকর পরিস্থিতির সৃষ্টি না হয়, সে কারণে নবান্নের তরফে সতর্ক করা হয়েছে সব জেলার প্রশাসনিক কর্তাদের। তৈরি থাকতে বলা হয়েছে রাজ্যের বিপর্যয় মোকাবিলা বাহিনীকেও। নজরদারি চালানো হচ্ছে সেচ দফতরের তরফ থেকেও।

Comments
Loading...