সরাসরি রাজনীতি করতে নতুন দল গড়ছেন আইআইটির ৫০ প্রাক্তনী

বিচ্ছিন্নভাবে অন্য কোনও পেশায় প্রতিষ্ঠিত ব্যক্তির রাজনীতিতে যোগ দেওয়ার ঘটনা নতুন কিছু নয়। ইদানীংকালে শশী থারুর থেকে অরবিন্দ কেজরিওয়াল, অনেক উদাহারণ আছে। কিন্তু এবার এক বিরল দৃষ্টান্ত স্থাপন করলেন দেশের বিভিন্ন আইআইটির ৫০ জন প্রাক্তনী। সংবাদসংস্থা সূত্রে খবর, দেশের বিভিন্ন আইআইটির ৫০ জন প্রাক্তনী তাঁদের নিশ্চিন্ত চাকরি ছেড়ে গড়তে চলেছেন নতুন রাজনৈতিক দল। তাঁরা এই রাজনৈতিক দলের নাম দিয়েছেন, ‘বহুজন আজাদ পার্টি’। শুধু তাই নয়, নতুন দলের অনুমোদনের জন্য তাঁরা জাতীয় নির্বাচন কমিশনের কাছে সম্প্রতি আবেদনও করেছেন। জানা গিয়েছে, ভারতের দলিত, তফশিলী জাতি, উপজাতি এবং অন্যান্য পিছিয়ে পড়া মানুষের দাবি-দাওয়া পূরণ করার লক্ষ্য রেখেই এই ‘বহুজন আজাদ পার্টি’ গড়েছেন তাঁরা। দলিত, তফশিলী জাতি, উপজাতি এবং পিছিয়ে পড়া মানুষের অধিকার আদায় করাই হবে আইআইটি প্রাক্তনীদের মূল অ্যাজেন্ডা।
দিল্লি আইআইটির ২০১৫ সালের গ্রাজুয়েট নবীন কুমার জানিয়েছেন, ‘আমরা প্রত্যেকেই চাকরি ছেড়েছি প্রত্যক্ষভাবে রাজনীতি করার জন্য। জাতীয় নির্বাচন কমিশনের কাছে আবেদনও করেছি দলের অনুমোদনের জন্য।’ তিনি জানান, তাঁদের কোনও তাড়াহুড়ো নেই। ২০১৯ সালের লোকসভা ভোটের কথা ভেবেও তাঁরা এই রাজনৈতিক দল তৈরি করছেন না। ২০২০ সালে বিহার বিধানসভা ভোটে তাঁরা প্রথম প্রতিদ্বন্দিতা করতে চান। তারপর তাঁরা পরবর্তী লোকসভা ভোটে লড়ার প্রস্তুতি নেবেন। বহুজন আজাদ পার্টির যে ব্যানার আইআইটি প্রাক্তনীরা তৈরি করেছেন তাতে বি আর আম্বেদকর, সুভাষচন্দ্র বসু, এপিজে আবদুল কালামসহ একাধিক ব্যক্তির ছবি থাকছে। নবীন কুমার জানান, ‘বহুজন আজাদ পার্টি’ অনুমোদন পাওয়ার পর, তাঁরা সাধারণ মানুষের মধ্যে প্রচার কর্মসূচি শুরু করবেন।

Comments
Loading...