এই ক্ষেত্রে দেশে এখনই ৯৩,৫০০ চাকরি খালি রয়েছে! জানেন কী কাজ? মাঝারি লেভেলে বেতন বছরে ৯ লক্ষ টাকা

চলতি বছরের অগাস্ট মাসের শেষে সারা দেশে ডেটা সায়েন্সের কাজে খালি ছিল ৯৩ হাজার ৫০০ পদ! জানাচ্ছে এডুকেশন টেকনোলজি কোম্পানি গ্রেট লার্নিং।

করোনা অতিমারির জেরে সারা বিশ্বের চাকরি ক্ষেত্রে নেতিবাচক প্রভাব পড়েছে। কিন্তু এই টেকস্যাভি যুগে উত্তরোত্তর বৃদ্ধি পাচ্ছে ডেটা অ্যানালিসিস সংক্রান্ত কাজ। আর সেখানেই ব্যাপক চাহিদা ডেটা সায়েন্স কর্মীর। গ্রেট লার্নিং- এর সমীক্ষা বলছে, ভারতে এই বিষয়ে সবচেয়ে বেশি চাকরি দিচ্ছে বেঙ্গালুরু। ভারতে অ্যানালিটিক্স জবের ২৩ শতাংশ চাকরিই দিয়েছে বেঙ্গালুরু। তার পরে রয়েছে দিল্লি ও মুম্বই।

ভারতে কেমন বেতন ডেটা সায়েন্স প্রফেশনালদের?

এই ক্ষেত্রে বেতন বেশ নজরকাড়া। গ্রেট লার্নিং-এর সমীক্ষা জানাচ্ছে, ভারতে ডেটা সায়েন্স প্রফেশনালদের মাঝারি লেভেলে বার্ষিক বেতন প্রায় সাড়ে ৯ লক্ষ টাকা। নতুন কর্মীদের মাসিক বেতনই প্রায় ৪০-৪৫ হাজার টাকা। আর ১০ বছরের অভিজ্ঞতা সম্পন্ন কর্মীদের ক্ষেত্রে বেতন কাঠামো বছরে ২৫ থেকে ৫০ লক্ষ টাকা। যদিও তা নির্ভর করছে দক্ষতার ওপর।

সমীক্ষাটি আরও জানাচ্ছে, মধ্য এবং সিনিয়র লেভেল প্রফেশনাল, সংশ্লিষ্ট ক্ষেত্রে যাঁদের অভিজ্ঞতা মোটামুটি সাত বছরের, ২০২০ সালে তাঁদেরই সবচেয়ে বেশি চাহিদা ভারতে।

কোন ক্ষেত্রে সবচেয়ে বেশি চাহিদা

তথ্যপ্রযুক্তি বাদে BFSI বা ব্যাঙ্কিং, ফিনান্সিয়াল সার্ভিসেস অ্যান্ড ইন্সিওরেন্স সেক্টরে সবচেয়ে বেশি চাহিদা ডেটা সায়েন্স কর্মীর। অ্যানালিটিক্স ও ডেটা সায়েন্স ট্যালেন্টের বড়ো জায়গা এখন সংশ্লিষ্ট সেক্টর। সারা দেশের অ্যানালিটিক্স ও ডেটা সায়েন্স ট্যালেন্টের কর্মসংস্থানের ৩৫ শতাংশের ভাগীদার BFSI সেক্টর। এদিকে কোভিড বিধ্বস্ত বিশ্ববাসী এখন ভ্যাকসিনের আশায় বসে আছে। সেখানে ফার্মা সেক্টরেও তাৎপর্যপূর্ণভাবে বৃদ্ধি পেয়েছে ডেটা সায়েন্স ও অ্যানালিটিক্স প্রফেশনালদের চাহিদা। ফার্মা সেক্টরে এই ধরনের কর্মীর চাহিদা গত বছরের চেয়ে গড়ে প্রায় ৪ শতাংশ বৃদ্ধি পেয়েছে বলে সমীক্ষায় প্রকাশ।

অ্যানালিটিক্স প্রফেশনালদের চাকরি কোন সংস্থায়

চলতি বছরে বেশি চাকরি দিচ্ছে যে সব সংস্থা তার মধ্যে প্রথম ১০ টি নাম অ্যাকসেঞ্চার (Accenture), এমফাসিস (Mphasis), কগনিজেন্ট টেকনোলজি সলিউশনস (Cognizant Technology Solutions), ক্যাপজেমিনি (Capgemini), ইনফোসিস (Infosys), টেক মাহিন্দ্রা (Tech Mahindra), আইবিএম ইন্ডিয়া (IBM India), ডেল (Dell), এইচসিএল (HCL) ও কোল্লাবেরা টেকনোলজি (Collabera Technology)।

Comments
Loading...