নোটবন্দির সময় মেয়ের বিয়েতে ৫০০ কোটি টাকা খরচ করেছিলেন ‘বেল্লারির বাদশা’ বিজেপি নেতা, ধৃত জনার্দন রেড্ডি

২০১৬ সালের নভেম্বরে নোট বাতিলের এক সপ্তাহের মধ্যে মেয়ের বিয়েতে ৫০০ কোটিরও বেশি টাকা খরচ করে সারা দেশে আলোড়ন ফেলে দিয়েছিলেন কর্ণাটকের বেল্লারির বিতর্কিত খনি ব্যবসায়ী এবং বিজেপি নেতা জনার্দন রেড্ডি। শনিবার কর্ণাটকে বিজেপির প্রাক্তন মন্ত্রী এই জনার্দন রেড্ডিকেই চিট ফান্ডের ৬০০ কোটি টাকা প্রতারণা মামলায় গ্রেফতার করল সেই রাজ্যের পুলিশ। সোমবার তাঁকে ১৪ দিনের বিচারবিভাগীয় হেফাজতে পাঠিয়েছে আদালত। জনার্দন রেড্ডির গ্রেফতার স্বাভাবিকভাবেই সেই রাজ্যে বিজেপির কাছে এক বড় ধাক্কা। কিন্তু এর আগেও বারবারই বিতর্কের কেন্দ্রে উঠে এসেছে এই খনি ব্যবসায়ীর নাম।
কে এই জনার্দন রেড্ডি এবং তাঁর বিরুদ্ধে কী অভিযোগ?
পুলিশ সূত্রে খবর, অর্থ তছরুপ, প্রমাণ নষ্ট করা ও বেআইনি লেনদেনে মূল অভিযুক্তকে সাহায্য করার অভিযোগ রয়েছে রেড্ডির বিরুদ্ধে। সেন্ট্রাল ভিজিলেন্স কমিশনের তদন্ত বলছে, চিট ফান্ড অ্যাম্বিডেন্ট মার্কেটিং-এর প্রমোটার সৈয়দ আহমেদ ফরিদের প্রতি ইডি আধিকারিকরা যাতে কঠোর মনোভাব না দেখান, সেই সমঝোতার জন্য রেড্ডি ও তাঁর সহকারী মেহফুজ অ্যাম্বিডেন্টের থেকে ৫৭ কেজি সোনা ও ১৮ কোটি টাকা নিয়েছেন। কর্নাটকের পুলিশ কমিশনার আগেই জানিয়েছিলেন, ২০১৬-১৭ সালে তৈরি হওয়া অ্যাম্বিডেন্ট নামে একটি কোম্পানি বিনিয়োগকারীদের মাসে ৩০ শতাংশ লাভ ফিরিয়ে দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়েছিল। সেখানে বিনিয়োগ করেন কয়েক হাজার মানুষ। এরপর যখন কোম্পানি মূল আমানত ফেরত দিতে ব্যর্থ হয়, তখনই তাদের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের হয়।
এছাড়া জনার্দনের বিরুদ্ধে দুর্নীতির একাধিক অভিযোগ রয়েছে। কর্ণাটকের বেল্লারি জেলায় একচেটিয়া দাপট রেড্ডি ভাইদের। অভিযোগ, বেল্লারির খনির লৌহ আকরিক বেআইনি পাচারের কারবারে তাঁদের রমরমা। গত বিধানসভা নির্বাচনের আগে ইয়েদুরিয়াপ্পা মন্ত্রিসভার সদস্য জনার্দন রেড্ডির বিরুদ্ধে দুর্নীতির বিপুল অভিযোগ ওঠে। ফলে বাধ্য হয়ে তাঁকে নির্বাচনে টিকিট দেয়নি বিজেপি। তবে রেড্ডির অন্য দু’ভাই জি করুণাকর রেড্ডি এবং জি সোমশেখর রেড্ডিকে বিজেপি টিকিট দেয়। জনার্দন রেড্ডি বিজেপি’র হয়ে তাঁর ভাইদের সমর্থনে নির্বাচনী প্রচার চালান। এত টাকা এবং প্রভাব থাকা সত্ত্বেও সম্প্রতি বেল্লারি লোকসভা নির্বাচনে গোহারা হারেন রেড্ডিদের ঘনিষ্ঠ বিজেপি প্রার্থী।
এর আগে কর্নাটকে বিধানসভা নির্বাচনে বিজেপি-র বিরুদ্ধে ঘুষ দিয়ে বিধায়ক কেনার অডিও টেপ ফাঁস হয়। বিধায়কদের ঘুষ দেওয়ার অভিযোগ উঠেছিল বিজেপি’র জনার্দন রেড্ডির বিরুদ্ধে। ওই অডিও টেপে জনার্দন রেড্ডিকে কথা বলতে শোনা যায়, রায়চুরের বিধায়ক বাসনাগৌড়ার সঙ্গে।
আগে জনার্দন রেড্ডির দুটি বাড়িতে হানা দিয়ে ৩ কোটি টাকা, ৩০ কিলোগ্রাম সোনা এবং নথিপত্র উদ্ধার করেছিল পুলিশ। এই গ্রেপ্তারের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ জানিয়ে তখন বিজেপি দাবি করে, কেন্দ্রের কংগ্রেস সরকারের রাজনৈতিক বদলা। নোট বাতিলের পর মেয়ের বিয়েতে কোটি কোটি টাকা খরচ করে খবরের শিরোনামে উঠে এসেছিলেন বিতর্কিত এই বিজেপি নেতা। জানা যায়, জনার্দন রেড্ডি বেঙ্গালুরুতে মেয়ের বিয়েতে খরচ করেছিলেন প্রায় ৫০০ কোটি টাকা। তীব্র নোট সংকটের সময়েও এত টাকা খরচ করে মেয়ের বিয়ে দেওয়ার বিষয়টি হই চই ফেলে দিয়েছিল চারিদিকে।

Comments
Loading...