দু’সপ্তাহে ৭ বার! কানহাইয়া কুমারের কনভয়ে হামলার অভিযোগ বিজেপির বিরুদ্ধে

কেন্দ্রের নয়া নাগরিকত্ব আইন, এনআরসি, এনপিআরের বিরুদ্ধে দেশজুড়ে সভা করছেন মোদী-শাহ বিরোধী হিসেবে পরিচিত কানহাইয়া কুমার। প্রতি সপ্তাহেই এক রাজ্য থেকে অন্য রাজ্যে সভা করছেন তিনি। বারবার বাধার মুখে পড়েছেন, আটক হতে হয়েছে পুলিশের হাতে। কিন্তু আন্দোলন থেকে পিছিয়ে আসেননি তিনি। মঙ্গলবার বিহারে ফের কানহাইয়া কুমারের কনভয়ে হামলার অভিযোগ উঠেছে। এক কংগ্রেস নেতার গাড়িতেও ভাঙচুর করা হয়। অভিযোগের তির বিজেপির দিকে।
কানহাইয়ার অভিযোগ, মঙ্গলবারের হামলা নিয়ে গত দু’সপ্তাহে সাতবার তাঁর কনভয়ে হামলা চালানো হল। কানহাইয়া কুমারের রাজ্যভিত্তিক ‘জন গন মন যাত্রা’র সংগঠকদের অভিযোগ, গত একমাস ধরে কানহাইয়ার বিভিন্ন সভায় বাধা সৃষ্টি করছে বিজেপি।
মঙ্গলবার বিহারের গয়া জেলার শেরঘাটিতে এক জনসভায় উপস্থিত ছিলেন সে রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী তথা হিন্দুস্তানি আওয়াম মোর্চার প্রধান জিতন রাম মাঝি, কংগ্রেস বিধায়ক শাকিল আহমেদ খান, আদেশকুমার সিংহ প্রমুখ। সেই সভায় যোগ দেওয়ার পথে বাইক নিয়ে একদল দুষ্কৃতী আদেশকুমার সিংহের গাড়িতে হামলা চালায়। ঢিল ছুড়ে তাঁর গাড়ির জানলার কাচ ভেঙে দেওয়া হয় বলে অভিযোগ। সংগঠকরা জানান, ওই বাইক বাহিনীর রাজনৈতিক স্লোগান এবং কানহাইয়া কুমারের বিরুদ্ধে চিৎকার ও স্লোগানে বোঝা যায় তারা বিজেপিরই দুষ্কৃতী। কংগ্রেস নেতার আহত হওয়ার খবর পাওয়া না গেলেও এ নিয়ে স্থানীয় পুলিশ স্টেশনে অভিযোগ দায়ের হয়েছে বলে খবর।
এনপিআর-এনআরসি-সিএএ- এর বিরুদ্ধে গঠিত জয়েন্ট ফোরামের এক বিবৃতিতে বলা হয়, গত দুই সপ্তাহে এ নিয়ে সাতবার কানহাইয়া কুমারের কনভয়ে হামলা হল। বিবৃতিতে আরও বলা হয়, বিহারের মুখ্যসচিবকে বিষয়টি জানানো হয়েছে। এবার মুখ্যমন্ত্রী নীতীশ কুমারকেও এই বিষয়ে হস্তক্ষেপের আর্জি জানাচ্ছি আমরা। যাতে শান্তিপূর্ণ এই সভায় ভবিষ্যতে কোনও হামলা না হয় সে বিষয়টি দেখার জন্যও নীতীশ কুমারকে আবেদন করা হয়েছে। বিজেপির হিংসাকে ভালোবাসা দিয়ে জয় করতে হবে বলে মন্তব্য করেন আক্রান্ত কংগ্রেস নেতা।

Comments
Loading...