নাগরিকত্ব আইনের বিরুদ্ধে সুপ্রিম কোর্টে তৃণমূল সাংসদ মহুয়া মৈত্র

নাগরিকত্ব সংশোধনী বিলের বিরোধিতা করে সুপ্রিম কোর্টের দ্বারস্থ হলেন তৃণমূল সাংসদ মহুয়া মৈত্র (Mahua Moitra)। বৃহস্পতিবার রাতেই নাগরিকত্ব সংশোধনী বিলকে আইনে পরিণত করতে সম্মতি দিয়েছেন রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দ। এই প্রেক্ষিতে সুপ্রিম কোর্টে গেলেন কৃষ্ণনগরের সাংসদ মহুয়া মৈত্র।

নাগরিকত্ব সংশোধনী বিলকে চ্যালেঞ্জ জানিয়ে তৃণমূল সাংসদের (Mahua Moitra) আইনজীবী দ্রুত এই মামলার শুনানির আবেদন করেন। যদিও সুপ্রিম কোর্টের প্রধান বিচারপতি এস এ বোবদের নেতৃত্বাধীন বেঞ্চ দ্রুত শুনানির আবেদন খারিজ করে দিয়েছে। শীর্ষ আদালতের তরফে মহুয়ার আইনজীবীকে মেনশনিং অফিসারের কাছে বিষয়টি জানাতে বলা হয়েছে।
এদিকে এই বিলের বিরুদ্ধে সুপ্রিম কোর্টে গিয়েছে ইন্ডিয়ান ইউনিয়ন অফ মুসলিম লিগ এবং জমিয়তে উলেমায়ে হিন্দও। মামলার আবেদনে তাদের দাবি, বিলটি সংবিধান বিরোধী। মুসলিম লিগের হয়ে সুপ্রিম কোর্টে পিটিশন দাখিল করেছেন বিশিষ্ট আইনজীবী তথা কংগ্রেস নেতা কপিল সিব্বল।তিনি জানান, এই বিলকে অবৈধ ঘোষণা করার আবেদন জানানো হয়েছে। সুত্রের খবর, সিপিএম এবং কংগ্রেসও এই বিলের বিরুদ্ধে সুপ্রিম কোর্টে যেতে পারে। কংগ্রেস নেতা কে সি বেণুগোপাল বলেন, সব সম্ভাবনা খতিয়ে দেখা হচ্ছে। এরই মধ্যে নাগরিকত্ব সংশোধনী বিলের বিরোধিতা করে ইস্তফা দিয়েছেন মহারাষ্ট্রের আইপিএস অফিসার আবদুর রহমান। তিনি ওই রাজ্যের মানবাধিকার কমিশনের আইজি পদমর্যাদার অফিসার।
কেন্দ্রের নাগরিকত্ব সংশোধনী বিলের প্রতিবাদে অসম, ত্রিপুরা সহ উত্তর-পূর্বাঞ্চলে প্রবল আন্দোলন চলছে। বৃহস্পতিবার রাতে গুয়াহাটিতে অন্তত দু’জনের মৃত্যু হয়েছে বলে খবর। ধর্মের ভিত্তিতে এই বিল করা হয়েছে, এমন অভিযোগ করে প্রথম থেকেই নাগরিকত্ব বিলকে ‘অসাংবিধানিক’ হিসেবে বর্ণনা করেছে কংগ্রেস, তৃণমূল, বহুজন সমাজ পার্টি, সমাজবাদী পার্টি সহ বিরোধী ও আঞ্চলিক দলগুলি।
এদিকে মহারাষ্ট্রে বিজেপির একসময়ের জোটসঙ্গী শিবসেনাও নাগরিকত্ব আইনের কড়া নিন্দা করেছে। তাদের অভিযোগ, হিন্দুত্ব রক্ষার নামে বিজেপির এই রাজনীতির জন্যই হিংসা ছড়াচ্ছে উত্তর-পূর্বের রাজ্যগুলিতে।

Comments
Loading...