দেশের ৬০ শতাংশ শিশু ভুগছে রক্তাল্পতায়, এক তৃতীয়াংশের বেশি শিশু অপুষ্টি এবং ক্ষয়রোগে, সমীক্ষায় প্রকাশ ভারতের করুণ চেহারা

সোমবারই অক্সফাম ইন্টারন্যাশনালের প্রকাশিত রিপোর্টে উঠে এসেছে ভারতের অর্থনৈতিক অসাম্যের এক ভয়াবহ চেহারা। এবার ‘ইকোনমিক অ্যান্ড পলিটিক্যাল উইকলি’র ১২ জানুয়ারি সংখ্যায় এক প্রতিবেদনে ভারতের শিশুদের শারীরিক অবস্থা এবং স্বাস্থ্যের যে রিপোর্ট প্রকাশিত হয়েছে তাতে আরও একবার ফুটে উঠল দেশের করুণ চেহারা।
‘বার্ডেন অব চাইল্ড ম্যালনিউট্রিশন ইন ইন্ডিয়া’ শীর্ষক প্রতিবেদনটি লেখেন হার্ভার্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের স্ট্যাটিস্টিকসের অধ্যাপক অক্ষয় স্বামীনাথন, বোস্টনের সোশ্যাল অ্যান্ড বিহেভেরিয়াল সায়েন্সস বিভাগের অধ্যাপক রকলি কিম, হার্ভার্ড সেন্টার ফর পপুলেশন অ্যান্ড ডেভলপমেন্ট স্টাডিজ বিভাগের ইয়ান জুং এবং এস ভি সুব্রমানিয়ান, হার্ভার্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের জিওগ্রাফিক অ্যানালিস্ট জেফ্রি সি ব্লসোম ও কেন্দ্র সরকারের নীতি আয়োগের আধিকারিক অলোক কুমার প্রমুখ।
তাঁদের সমীক্ষায় উঠে এসেছে, এদেশে ৫ বছরের নীচে প্রায় ২০ শতাংশ শিশুর স্বাস্থ্য সংকটজনক অবস্থায় রয়েছে। দেশের এক তৃতীয়াংশ শিশুর ওজন স্বাভাবিকের তুলনায় অনেক কম, এক তৃতীয়াংশেরও বেশি শিশুর শারীরিক বিকাশ হয়নি। ৬ মাস থেকে ৫ বছরের শিশুদের ৬০ শতাংশের বেশি ভুগছে রক্তাল্পতায়। যার মধ্যে আবার ৫৭ শতাংশ শিশুর রক্তাল্পতার সমস্যা গুরুতর।

খর্বকায়তা
বিশেষত, মধ্য ও উত্তর-পূর্ব ভারতের শিশুরা স্বাভাবিক হারে বাড়ছে না বলে রিপোর্টে প্রকাশ। উত্তর প্রদেশ, ঝাড়খন্ড, বিহার এবং মধ্য প্রদেশের শিশুদের একটা বিশাল অংশের স্বাভাবিক বৃদ্ধি হচ্ছে না। বিশেষত উত্তরপ্রদেশের স্রাবস্তী, কৈশরগঞ্জ এবং বাহরিচ এলাকায় এই ছবি ভয়াবহ। প্রায় ৬০ শতাংশ শিশুর স্বাভাবিক বৃদ্ধি নেই এই এলাকাগুলিতে।

ওজনহীনতা
খর্বকায়তার মতোই ওজনহীনতায় ভুগছে দেশের বিশাল সংখ্যক শিশু। উত্তর প্রদেশ, ঝাড়খন্ড, ছত্তিশগড় ও মধ্য প্রদেশে ‘আন্ডারওয়েট’ শিশুর সংখ্যা অন্যান্য রাজ্যের চেয়ে অনেক বেশি। ঝাড়খন্ডের সিংভূম ও পশ্চিমবঙ্গের পুরুলিয়ার প্রায় ৬০ শতাংশ শিশুর ওজন স্বাভাবিক ওজনের চেয়ে অনেক কম।

ক্ষয়রোগ
মধ্য ও পূর্ব ভারতের রাজ্যগুলি, বিশেষত, মধ্য প্রদেশ, গুজরাত, মহারাষ্ট্র, ছত্তিশগড় ও ঝাড়খন্ডে ‘ওয়েস্টিং’ বা ক্ষয়রোগের শিকার বিশাল সংখ্যক শিশু। ঝাড়খন্ডের জামশেদপুরে ৪০.৬ শতাংশ শিশু, পশ্চিমবঙ্গের পুরুলিয়ার ৩৪.৬ শতাংশ ও মহারষ্ট্রের নান্দুরবারে ৩৪.৫ শতাংশ শিশু অপুষ্টিজনিত রোগে ভুগছে।

রক্তাল্পতা
মধ্য ভারতের প্রায় সব অঞ্চলের শিশুই রক্তাল্পতার শিকার। মধ্য প্রদেশ ও হরিয়ানা রাজ্যে সর্বাধিক শিশু অ্যানিমিয়ায় আক্রান্ত। আর জেলা ভিত্তিতে ঝাড়খন্ডের সিংভূমে ৮৩ শতাংশ, রাজস্থানের বাঁশওরার ৭৯.৩ শতাংশ ও মধ্য প্রদেশের খারগোনের ৭৯.১ শতাংশ শিশুর মধ্যে অ্যানিমিয়া পরিলক্ষিত হয়েছে।

রাজ্যভিত্তিক রিপোর্ট
বিহার ও উত্তর প্রদেশের শিশুদের মধ্যে ক্ষয়রোগ সর্বাধিক। অন্যদিকে কেরালা ও গোয়াতে সবচেয়ে কম শিশু ক্ষয়রোগের শিকার বলে ওই রিপোর্টে প্রকাশ হয়েছে। জম্মু-কাশ্মীর ও কেরালাতে সবচেয়ে কম সংখ্যক শিশু ওজনহীনতায় ভুগছে। অপরদিকে ঝাড়খন্ড ও বিহার রাজ্যে আন্ডারওয়েট শিশুর সংখ্যা সর্বাধিক বলে জানা যাচ্ছে ওই রিপোর্টে।

Comments
Loading...