সরকারি অফিসে অর্ধেক হাজিরা, অর্ধেক থাকবেন বাড়িতে, করোনা মোকাবিলায় সিদ্ধান্ত মমতার, তৈরি এমার্জেন্সি রিলিফ ফান্ড

করোনা মোকাবিলায় একগুচ্ছ ঘোষণা করল রাজ্য সরকার।

রাজ্যের সাড়ে ৭ কোটি মানুষকে বিনামূল্যে ২ টাকা কেজির চাল দেওয়া হবে আগামী সেপ্টেম্বর মাস পর্যন্ত। মাসিক ৫ কেজি করে চাল পরিবারপিছু দেওয়া হবে। একইভাবে দেওয়া হবে মিড ডে মিল এবং অন্যান্য সরকারি প্রকল্পের সুবিধা।

সোমবার থেকে রাজ্য সরকারি অফিসগুলোতে চালু হবে অর্ধেক হাজিরা। অর্থাৎ অফিসে অর্ধেক কর্মী কাজে আসবেন, বাকি অর্ধেক বাড়িতে। পরের সপ্তাহে আবার উল্টে যাবে তা। ই অফিস সিস্টেম কাজে লাগিয়ে কর্মীরা যাতে বাড়ি বসেও কাজ চালিয়ে যেতে পারেন, তা দেখা হচ্ছে বলে জানান মমতা ব্যানার্জি। এই প্রক্রিয়া আপাতত চলবে ৩১ তারিখ অবধি। তারপর পরিস্থিতি বুঝে সিদ্ধান্ত। মুখ্যমন্ত্রী বেসরকারি সংস্থাগুলোর প্রধানদের কাছেও অন্তত ৫০ শতাংশ কর্মীকে বাড়িতে রাখার পরামর্শ দেন। প্রয়োজনে কাজের সময় কাটছাঁটের কথাও ভাবতে বলেন মমতা।

করোনা পরিস্থিতি মোকাবিলায় স্টেট এমার্জেন্সি রিলিফ ফান্ড তৈরি করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী। কেউ আর্থিক সহায়তা করতে চাইলে এখানে করতে পারবেন। যে সমস্ত কর্মী এই করোনা পরিস্থিতিতে প্রাণপণ লড়াই চালিয়ে যাচ্ছেন, সেই স্বাস্থ্যকর্মী, ডাক্তার, পুলিশ, সংবাদমাধ্যমের কর্মীদের ধন্যবাদ জানানোর পাশাপাশি পুজোর পর তাদের নিয়ে অতিরিক্ত ছুটির বিষয়ে দেখা হবে বলে জানান মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি।

মুখ্যমন্ত্রী এদিন বিদেশি বিমানের ওঠানামা নিয়েও উদ্বেগ প্রকাশ করেন। তাঁর অভিযোগ, কলকাতায় এখনও বিদেশি বিমান নামছে। বিদেশ থেকে আসা ফ্লাইট আর কত সামলাবো, বলেন মমতা। শুক্রবার প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠকেও এ বিষয়টি তুলবেন বলে জানিয়েছেন তিনি।

মুখ্যমন্ত্রী ভয় না পাওয়ার পরামর্শ দিয়ে বলেন, ঠিকমতো ট্রিটমেন্ট হলে সুস্থ হয়ে যাবেন।

Comments
Loading...