নন্দীগ্রাম আমাকেই ভোট দেবে, বললেন মমতা, খেলা হবে স্লোগান কর্মীদের

মমতার নির্বাচনী এজেন্ট শেখ সুফিয়ান

রেয়াপাড়ার শিব মন্দিরে পুজো দিয়ে হলদিয়ায় মহকুমা শাসকের দফতরে মনোনয়ন পেশ করেন মমতা ব্যানার্জি। সঙ্গে ছিলেন হাজার হাজার মানুষ। কার্যত জনজোয়ারে ভাসতে ভাসতেই নন্দীগ্রাম থেকে হলদিয়া গেলেন মমতা। মুহুর্মুহু স্লোগান উঠল খেলা হবে, মীরজাফর দূর হঠো। আর মনোনয়ন জমা করে বেরিয়ে এসে নেত্রী বললেন, আমার নাম প্রস্তাব করেছেন শহিদ পরিবারের সদস্য সহ ৪ জন। নির্বাচনী এজেন্ট শেখ সুফিয়ান। 

বুধবার মনোনয়ন জমা করেই কলকাতা ফেরার কথা ছিল মমতার। কিন্তু তিনি বুধবারও নন্দীগ্রামেই থেকে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নেন। তৃণমূল নেত্রীর কথায়, এখানে বেশ কিছু অনুরধ এসেছিল। তাই আজকে থেকে গেলাম। বৃহস্পতিবার সকালে কলকাতা ফিরে তৃণমূলের ইশতেহার প্রকাশ করবেন মমতা ব্যানার্জি। 

এদিন মনোনয়ন জমা দেওয়ার সময় বেশ খোশমেজাজেই দেখা যায় তৃণমূল নেত্রীকে। বলেন, নন্দীগ্রাম আমার কাছে নতুন নয়। নন্দীগ্রামের আন্দোলনের সময় ছিলাম। আমার কাছে সংগ্রামের আরেক নাম নন্দীগ্রাম। আমি নিজে স্ট্রিট ফাইটার, লড়াই করেই বাঁচি। তারপরই দৃশ্যত আত্মবিশ্বাসী মমতা ব্যানার্জি বলেন, আমি আশা করি নন্দীগ্রামের মানুষ আমাকে ভোট দেবেন। তৃণমূলকে জেতাবেন। নন্দীগ্রামের মানুষকে স্যালুট। ফের একবার বলেন, ভুলতে পারি নিজের নাম, ভুলব নাকো নন্দীগ্রাম। 

মমতা জানান, তাঁর ইচ্ছে ছিল সিঙ্গুর বা নন্দীগ্রাম থেকে একবার ভোটে লড়ার। তাই কাল আপনাদের জিজ্ঞেস করি দাঁড়াব কিনা। আপনারা বলেছেন তাই এখানে দাঁড়িয়েছি। আমার আশা নন্দীগ্রাম আমাকেই ভোট দেবে। উপস্থিত জনতা খেলা হবে গর্জনে সায় দেয় মমতার কথায়। 

হলদিয়া থেকে আবার হেলিকপ্টারে নন্দীগ্রাম পৌঁছন মমতা ব্যানার্জি। নন্দীগ্রামে একাধিক মন্দিরে যান তিনি।

Comments
Loading...