মমতা: বিবাদ ভুলে কাজ করুন, মুর্শিদাবাদের ২২টি আসনই চাই

গোষ্ঠীকোন্দল মেটাতে মুর্শিদাবাদ নেতৃত্বকে বার্তা মমতার

সামনে বিধানসভা ভোট। এদিকে তৃণমূলের গোষ্ঠীকোন্দল প্রকট হচ্ছে মুর্শিদাবাদে। এই প্রেক্ষিতে বৃহস্পতিবার মুর্শিদাবাদ জেলা তৃণমূল নেতৃত্বের সঙ্গে বৈঠক করলেন তৃণমূল নেত্রী মমতা ব্যানার্জি।

মমতা ছাড়াও এই বৈঠকে ছিলেন অভিষেক ব্যানার্জি ও তৃণমূলের নির্বাচনী স্ট্র্যাটেজিস্ট প্রশান্ত কিশোর। মুর্শিদাবাদের নেতাদের সঙ্গে বৈঠকে মমতার বার্তা, যে যাঁর এলাকায় কাজ করুন, অন্য এলাকা নিয়ে মাথা ঘামাতে হবে না। সূত্রের খবর, তিনি এও জানান, মুর্শিদাবাদ থেকে তাঁর ২২-এর ২২ টি আসনই চাই। সেই লক্ষ্যেই যেন জেলার নেতারা কাজ করেন। বৈঠকে জেলা সংগঠন পরিচালনার জন্য একটি স্টিয়ারিং কমিটির ঘোষণা করেছেন মমতা। কমিটিতে রাখা হয়েছে, জেলার দুই সাংসদ আবু তাহের খান, খলিলুর রহমান, মন্ত্রী জাকির হোসনে, বিধায়ক সুব্রত সাহা, মৈনুল হাসান ও অশোক দাস। পুরমন্ত্রী ফিরহাদ হাকিমের সঙ্গে সমন্বয় করে কাজ করবে এই কমিটি।

২০১৫ থেকে ২০২০ সালের মাঝামাঝি পর্যন্ত মুর্শিদাবাদ জেলার পর্যবেক্ষক পদে ছিলেন তৃণমূলত্যাগী বিজেপি নেতা শুভেন্দু অধিকারী। তাঁর সঙ্গে মুর্শিদাবাদ জেলা পরিষদের সভাধিপতি মোশারফ হোসেনের ঘনিষ্ঠতা রয়েছে। এই প্রেক্ষিতে ভার্চুয়াল বৈঠকে মোশারফকে তৃণমূল নেত্রীর বার্তা, জেলার নেতাদের সঙ্গে একজোট হয়ে কাজ করতে হবে। জানা গিয়েছে, দলের রাজ্য সভাপতি সুব্রত বক্সির সঙ্গে মোশারফকে আলাদা করে কথা বলার নির্দেশ দেন মমতা। তৃণমূল নেত্রী এও বলেন, যাঁরা দল ছাড়ছেন ছাড়ুন। বাকিরা ভাল করে কাজ করুন। সবাইকে একসঙ্গে চলতে হবে।

প্রসঙ্গত, বিধানসভা ভোটের আগে মুর্শিদাবাদের জেলা সভাপতি আবু তাহের ও জেলা পরিষদ সভাধিপতি মোশারফ হোসেনে ঝামেলা দীর্ঘদিনের। অন্যদিকে কয়েক মাস আগে ফের তৃণমূলে যোগ দিয়েছেন হুমায়ুন কবীর। তাতে গোষ্ঠীদ্বন্দ্ব বৃদ্ধি পেয়েছে রেজিনগরে। সবমিলিয়ে তৃণমূলে বিবাদ-গোষ্ঠীদ্বন্দ্ব মুর্শিদাবাদের সর্বত্রই। এই সব সমস্যা মিটিয়ে একজোট হয়ে সবাইকে লড়াই করার কথা বলেন মমতা ব্যানার্জি।

সূত্রের খবর, এই বৈঠকে মিম নিয়ে মুর্শিদাবাদের নেতাদের বার্তা দেন তৃণমূল নেত্রী। তিনি বলেন, হায়দরাবাদের এই দল নিয়ে দুশ্চিন্তা করার দরকার নেই। ভোটে মুর্শিদাবাদে কোনও দাগ কাটতে পারবে না এআইএমআইএম।ঘটনাচক্রে বৃহস্পতিবার তৃণমূল ভবনে বসে মুর্শিদাবাদ জেলার নেতাদের সঙ্গে যখন বৈঠক করছেন মমতা, সে সময়ই কলকাতা প্রেস ক্লাবে সাংবাদিক সম্মেলন করে ফুরফুরা শরিফের এক পীরজাদা আব্বাস সিদ্দিকী ‘ইন্ডিয়ান সেকুলার ফ্রন্ট’ নামে একটি নতুন দল ঘোষণা করেন। এই দলের সঙ্গেই আসন্ন বিধানসভা ভোটে জোটের ঘোষণা করে দিয়েছেন মিম প্রধান ওয়াইসি।

Comments
Loading...