ঝাড়গ্রামে জোড়া সভা শেষে কলকাতা ফিরবেন মমতা, SSKM এ চেকআপের পর ইশতেহার প্রকাশ

লোকসভা ভোটের পর জঙ্গলমহল কার্যত গেরুয়া শিবিরের দখলে চলে যায়

হুইল চেয়ারে বসেই প্রচারে ঝড় তুলেছেন তৃণমূল নেত্রী মমতা ব্যানার্জি। মঙ্গলবার জঙ্গলমহলে তিনটি সভা করেন তৃণমূল নেত্রী। বুধবারও জোড়া জনসভা মমতার।
আজ ঝাড়গ্রামে জোড়া সভা করবেন তিনি। প্রথম সভা করবেন গোপীবল্লভপুরে। দ্বিতীয় সভা করবেন রাজ্য রাজনীতির অন্যতম চৰ্চিত জায়গা লালগড়ে।
২০১১ রাজ্যে পালাবদলের পরে জঙ্গলমহলে শক্তি বৃদ্ধি করে তৃণমূল। কিন্তু ২০১৯ লোকসভা ভোটের পরে জঙ্গলমহলে রাজনৈতিক সমীকরণে ব্যাপক বদল আসে। তৃণমূলের প্রধান প্রতিদ্বন্দ্বী হিসেবে উঠে আসে বিজেপি। লোকসভা ভোটের পর জঙ্গলমহল কার্যত গেরুয়া শিবিরের দখলে চলে যায়। হারানো জমি পুনরুদ্ধার করতে মরিয়া তৃণমূল।

[আরও পড়ুন- ভিড় নেই! মাঠ ভরাতে ১ ঘণ্টা অপেক্ষা যোগীর, বেলদার ফাঁকা মাঠের ছবি ভাইরাল সোশ্যাল মিডিয়ায়]

জনসভা শেষে তৃণমূল নেত্রী ফিরে আসবেন কলকাতায়। এসএসকেএমে মুখ্যমন্ত্রীর পায়ের অবস্থা পরীক্ষা করবেন চিকিৎসকরা। বিকেলে তৃণমূলের ইশতেহার প্রকাশ।
ইশতেহার প্রকাশের আগে মঙ্গলবার তৃণমূল ‘অঙ্গীকারপত্র’ প্রকাশ করেছে। তাতে বেশকিছু চমক রয়েছে বলে দাবি ঘাসফুল শিবিরের। তৃণমূলের অঙ্গীকার পত্র অনুযায়ী,
২০% থেকে কমিয়ে দারিদ্রসীমার নিচে থাকা মানুষের সংখ্যা ৫% করার অঙ্গীকার করেছে তৃণমূল।
পাঁচ লক্ষ নতুন চাকরি।
দুয়ারে সরকার এর মত দুয়ারে রেশন ব্যবস্থা চালু করা।
ঘরে ঘরে রাজ্য সরকারের তরফে বিনামূল্যে রেশন পৌঁছে দেওয়ার ব্যবস্থা।
বাংলার বাড়ি প্রকল্পে ৫ লক্ষ বাড়ি তৈরী করবে রাজ্য সরকার।
গরিব পরিবারগুলিকে স্বাবলম্বী করতে ১.৬ কোটি পরিবারের গৃহকত্রীকে মাসিক ৫০০ টাকা করে দেওয়া হবে।
৬৮ লক্ষ কৃষককে বার্ষিক ১০ হাজার টাকা দেওয়া হবে কৃষক বন্ধু প্রকল্পে।
ছাত্রছাত্রীদের স্বল্প সুদে ঋণ।
সবমিলিয়ে ইশতেহার প্রকাশের আগেই অঙ্গীকার পত্রের মাধ্যমে তোলপাড় ফেলে দিয়েছে তৃণমূল। এখন দেখার ইশতেহারে কী থাকে।

Comments
Loading...