ওড়াকান্দিতে গিয়ে মতুয়া ভোটে প্রভাব ফেলার চেষ্টা! মোদীর ভিসা বাতিলের দাবি মমতার

বাংলায় ভোট চলাকালীন বাংলাদেশে গিয়ে একটি বিশেষ শ্রেণিকে প্রভাবিত করার চেষ্টা করছেন নরেন্দ্র মোদী। আইন সবার জন্য এক। তাহলে মোদীর বিরুদ্ধে নির্বাচনী বিধিভঙ্গের ধারা লাগু হবে না কেন? খড়গপুরের সভা থেকে মোদীর ভিসা বাতিলের দাবি তুললেন মমতা ব্যানার্জি। এনিয়ে কমিশনে যাবেন, হুঁশিয়ারি তৃণমূল নেত্রীর।

শনিবার খড়গপুরে নির্বাচনী সভা থেকে তাঁর দাবি, বিশেষ শ্রেণির ভোট নিশ্চিত করতেই বাংলাদেশে গিয়েছেন মোদী। মমতার কথায়, বাংলায় ভোট চলছে। আর বাংলাদেশে গিয়ে উনি বাংলা নিয়ে ভাষণ দিচ্ছেন! ওঁর জন্য কি সবই ছাড়?

এই প্রসঙ্গেই মমতা তুলে আনেন ২০১৯ সালের লোকসভা ভোটের ঠিক আগের একটি ঘটনার কথা। দুই বাংলার জনপ্রিয় তারকা অভিনেতা ফিরদৌস তৃণমূল প্রার্থীর হয়ে প্রচারে অংশ নিয়েছিলেন। মমতার অভিযোগ, বিজেপি নেতারা বাংলাদেশ সরকারের উপর চাপ সৃষ্টি করে ফিরদৌসকে তড়িঘড়ি ফেরত পাঠায় এবং তাঁর ভারতে ঢোকায় সাময়িক নিষেধাজ্ঞা জারি করে।

[আরও পড়ুন- LIVE মমতা: আমার লজ্জা করে যা চেয়েছে তাই দিয়েছি, বেইমান সব, নারায়ণগড় থেকে অধিকারী পরিবারকে কটাক্ষ মমতার]

সেই ঘটনার সূত্র ধরে তৃণমূল নেত্রী বলেন, ফিরদৌসের ভিসা-পাসপোর্ট বাতিল হলে আপনারটাও কেন নয়? আমেরিকা গিয়ে মোদীর আব কি বার ট্রাম্প সরকারের প্রসঙ্গও তোলেন মমতা। বলেন, আমেরিকার পর বাংলাদেশ গিয়ে একই কাজ করলেন! নির্বাচন ঘোষণার পর এরকম করা যায় বুঝি? কটাক্ষ মিশ্রিত প্রশ্ন মমতার।

শুক্রবার ২ দিনের বাংলাদেশ সফরে গিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী মোদী। শনিবার মতুয়াদের গুরু হরিচাঁদ ঠাকুরের জন্মস্থান ওড়াকান্দিতে যান তিনি। বলেন, ২০১৫ সালে প্রধানমন্ত্রী হিসেবে প্রথম বাংলাদেশে এসে ওড়াকান্দিতে আসার ইচ্ছা জানিয়েছিলাম। আমার সেই ইচ্ছা আজ পূরণ হল।

বাংলায় ভোট চলাকালীন মোদীর ওপার বাংলায় গিয়ে মতুয়া ধামে যাওয়া নিয়ে ইতিমধ্যেই বিতর্ক শুরু হয়েছে। সেই বিতর্কের আঁচ বহুগুণ বাড়িয়ে দিলেন মমতা ব্যানার্জি।

Comments
Loading...