প্রথা ভেঙ্গে ১ দিন আগে ৩১ মে কেরলে ঢুকছে বর্ষা, আশায় দেশের কৃষক সমাজ

কেরলে বর্ষা ঢুকলেও তা কলকাতায় পৌঁছতে দেরি আছে

গ্রীষ্মের প্রখর তাপদাহ থেকে মুক্তি আসন্ন। আবহাওয়া দফতর জানিয়েছে, এবার নির্ধারিত সময়ের আগেই দেশে ঢুকবে বর্ষা। মৌসম ভবন জানাচ্ছে, ৩১ মে কেরলে বর্ষা প্রবেশ করবে।

সাধারণত ভারতে কেরল উপকূল দিয়ে বর্ষা প্রবেশ করে ১ জুন। তারপর ক্রমশ তা ছড়িয়ে পড়ে গোটা দেশে। এ বছর সেই নির্ধারিত দিনের ২৪ ঘণ্টা আগেই কেরল উপকূলে ঢুকে পড়ছে দক্ষিণ পশ্চিম মৌসুমি বায়ু। আবহাওয়া দফতর জানিয়েছে, কেরলে বর্ষা ঢুকলেও তা কলকাতায় পৌঁছতে দেরি আছে।

আবহাওয়া দফতর সূত্রে খবর, চলতি বছরে জুন থেকে সেপ্টেম্বর পর্যন্ত ৯৮ শতাংশ বৃষ্টি হতে পারে।

দিল্লির মৌসম ভবনের তরফে জানানো হয়েছে, এ বছর দেশে স্বাভাবিক বর্ষা হবে বলে মনে করা হচ্ছে। জুন থেকে শুরু হয়ে সেপ্টেম্বর পর্যন্ত স্থায়ী হবে বর্ষা।

আবহাওয়াবিদরা জানিয়েছেন, এই নিয়ে টানা তিন বছর দেশে বর্ষার হার স্বাভাবিক থাকবে বলে আশাবাদী আবহবিদরা। আর্থ সায়েন্সেস মন্ত্রকের সচিব এম রাজীবন বলেছিলেন, আমাদের সকলের জন্য ভালো খবর। কারণ এ বছর বর্ষা স্বাভাবিক হতে চলেছে।

ভারতে বর্ষার দিকে তাকিয়ে থাকেন কৃষিজীবীরা। বর্ষা ভাল হওয়ার অর্থ বাম্পার ফলনের সম্ভাবনা। করোনা বিধ্বস্ত দেশের অর্থনীতির জন্য এর চেয়ে ভাল খবর আর কী হতে পারে? বলছেন বিশেষজ্ঞরা। তবে স্বাভাবিক বর্ষার খুশ খবরের পাশাপাশি রয়েছে অতিবৃষ্টির আশঙ্কা।

এদিকে আরব সাগরে সৃষ্টি হওয়া ঘুর্ণিঝড় তওকতে রবিবার দেশের দক্ষিণ উপকূলবর্তী এলাকায় আঁছড়ে পড়তে চলেছে। ইতিমধ্যেই মহারাষ্ট্র, কেরল এবং গুজরাতে ভারি বৃষ্টির সতর্কতা জারি করেছে আবহাওয়া দফতর। তৈরি রয়েছে বিপর্যয় মোকাবিলা বাহিনী।

Comments
Loading...