করোনা রোধে কার্যকরী নয়, ভুটানের পর নেপালেও বন্ধ রামদেবের করোনিল কিট বিলি

রামদেবের করোনার ওষুধ করোনিল কিট বিতরণ বন্ধ করল নেপাল। করোনা নিয়ন্ত্রণে রামদেবের ওষুধের কিট কতটা কার্যকরী, তার সঠিক প্রমান এখনও মেলেনি। ফলে ওষুধ বিতরণ বন্ধ রাখল নেপাল।

নেপালের ডিপার্টমেন্ট অব আয়ুর্বেদ অ্যান্ড অল্টারনেটিভ মেডিসিনস এক নির্দেশিকা জারি করে জানিয়েছে, নেপালে পতঞ্জলির করোনিলের ১৫০০ কিট নেওয়ার ক্ষেত্রে সঠিক পদ্ধতি মানা হয়নি। ওই ওষুধ নেপালে উপহার হিসাবে পাঠিয়েছিলেন রামদেব। এই সিদ্ধান্তের ফলে উপহার হিসেবে পাঠানো করোনিল কিট বিলি বন্ধ হয়ে গিয়েছে নেপালে। এর আগে প্রতিবেশী ভুটানেও করোনিল কিট বিলি বন্ধ করে দেওয়া হয়েছিল। এবার একই জিনিস নেপালেও।

নেপাল সরকারের তরফে বলা হয়েছে, করোনিল কিটের মধ্যে ট্যাবলেট আর নাসাল অয়েল আদৌ করোনা প্রতিরোধে সাহায্য করে কিনা তা বিজ্ঞানসম্মত ভাবে প্রমাণিত নয়। তাই রামদেবের করোনিল কিট ব্যবহার করবে না বলে ঠিক করেছে নেপাল। তবে করোনিল কিটকে এখনও নিষিদ্ধ ঘোষণা করেনি নেপাল। ফলে কেউ চাইলে দোকান থেকে রামদেবের করোনিল কিট কিনতে পারবেন বলে জানা গিয়েছে।

ইন্ডিয়ান মেডিক্যাল এসোসিয়েশন (IMA) রামদেবকে এই ওষুধের কার্যকারিতা নিয়ে চ্যালেঞ্জ জানিয়েছে। নেপালের স্বাস্থ্য মন্ত্রকের বিজ্ঞপ্তিতে সেই কথার উল্লেখ রয়েছে।

অ্যালোপ্যাথিকে স্টুপিড সায়েন্স বলে বিতর্কে জড়িয়েছেন পতঞ্জলির কর্ণধার রামদেব। তাঁর বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে আদালতে। যদিও শাসক ঘনিষ্ঠ বলে পরিচিত রামদেব চ্যালেঞ্জ ছুঁড়েছেন, কারও বাবার ক্ষমতা নেই তাঁকে গ্রেফতার করার। তাঁর বিরুদ্ধে ১ হাজার কোটি টাকার মানহানির মামলা দায়ের হয়েছে। তার মধ্যেই রামদেবের করোনিল কিট বিলি বন্ধ হয়ে গেল প্রতিবেশী ২ দেশ, ভুটান ও নেপালে।

Comments
Loading...