হাথরসে নির্যাতিতাকে যে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়েছিল সেখানকার সিসি টিভি ফুটেজ পেল না সিবিআই

হাথরস কাণ্ডের প্রমাণ লোপাটের অভিযোগ! হাথরস জেলা হাসপাতাল, যেখানে গত ১৪ সেপ্টেম্বর নির্যাতিতা দলিত তরুণীকে নিয়ে যাওয়া হয়, সেখানকার সিসিটিভি ফুটেজই পেলেন না তদন্তকারী সিবিআই অফিসাররা!
সিবিআই-এর জেরার মুখে হাসপাতালের সুপার ইন্দ্রবীর সিংহ জানিয়েছেন, এতদিন জেলা পুলিশ-প্রশাসনের কেউই সিসিটিভি ফুটেজ খতিয়ে দেখতে চাননি। ভিডিও ফুটেজের ব্যাকআপ রাখার কোনও নির্দেশও উপরতলা থেকে আসেনি। এখন এক মাস পর এই ভিডিও ফুটেজ তাঁরা দিতে পারবেন না বলে জানিয়ে দেন হাসপাতাল সুপার। তিনি আরও জানান, প্রতি সাতদিন অন্তর হাসপাতালের ভিডিও ফুটেজ ডিলিট করে দেওয়া হয়। তবে আগে থেকে প্রশাসনের তরফে কিছু জানালে তার ব্যাকআপ রেখে দেওয়া হয়। তাই হাথরস নির্যাতিতার হাসপাতালে থাকার সিসিটিভি ফুটেজ ‘হারিয়ে গিয়েছে’ বলে জানাল হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ।
বৃহস্পতিবার এই খবর প্রকাশ্যে আসতেই আরও একবার যোগী আদিত্যনাথের সরকারের বিরুদ্ধে প্রমাণ লোপাটের অভিযোগ জোরদার হয়ে উঠেছে। তথাকথিত উঁচুজাতের অভিযুক্ত চার যুবককে প্রশাসন আড়াল করার মরিয়া চেষ্টা চালিয়েছে বলেও ফের অভিযোগ তুলেছে বিরোধীরা।
বৃহস্পতিবার সিবিআই-এর আধিকারিকরা হাথরসের চিকিৎসক-স্বাস্থ্যকর্মীদের জিজ্ঞাসাবাদ করতে এবং তথ্যপ্রমাণ খতিয়ে দেখতে জেলা হাসপাতালে গিয়েছিলেন।
কিন্তু পুলিশ কেন এই গুরুত্বপূর্ণ মামলায় হাসপাতালের সিসিটিভি ফুটেজ চায়নি?
এর উত্তরে উত্তর প্রদেশের এক পুলিশ অফিসার জানান, এমন অপরাধমূলক ঘটনার তদন্তে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের কিছু করণীয় নেই। যদি হাসপাতালে কিছু অপরাধমূলক ঘটনার অভিযোগ ওঠে বা হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে অবহেলার অভিযোগ ওঠে তখন সিসিটিভি ফুটেজ চাওয়া হয়। এ ক্ষেত্রে এসব কিছুই হয়নি।

Comments
Loading...