এখনই দেশজুড়ে এনআরসি করার কোনও পরিকল্পনা নেই সরকারের,মঙ্গলবার লোকসভায় এমনটাই জানাল কেন্দ্র। স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী নিত্যানন্দ রাই এক লিখিত জবাবে জানান, এখনও পর্যন্ত সারা দেশে নাগরিকপঞ্জি প্রক্রিয়া চালু করার কোনও সিদ্ধান্ত নেননি তাঁরা। পাশাপাশি তিনি জানান, বিজেপি, অ-বিজেপি শাসিত সব রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গে সিএএ নিয়ে বিস্তারিত আলোচনার রাস্তাও খোলা রাখছে সরকার। দীর্ঘ দু’মাস ধরে নাগরিকপঞ্জি ও নয়া নাগরিকত্ব আইনকে কেন্দ্র করে দেশজুড়ে যে আন্দোলন চলছে, সরকার পক্ষের এই ঘোষণার পর সেই ক্ষোভের আঁচ প্রশমিত হবে বলে মনে করছে মোদী সরকার। ওয়াকিবহাল মহল বলছে, দেশজোড়া তীব্র ক্ষোভের আবহে অবশেষে পিছিয়ে গেল কেন্দ্র।
প্রসঙ্গত, গত শুক্রবার সংসদের যৌথ অধিবেশনে এনআরসি নিয়ে কোনও উল্লেখ পাওয়া যায়নি রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দের ভাষণে।
এদিকে কেন্দ্রের নয়া নাগরিকত্ব আইনে এই প্রথমবার ধর্মের ভিত্তিতে ভারতে থাকা শরণার্থীদের নাগরিকত্ব দেওয়ার কথা ঘোষিত হয়েছে। ডিসেম্বর মাসে সংসদে সেই বিল পাশ হয়ে গেলেও এখন কেন্দ্রকে আইনের খসড়া প্রকাশ করতে হবে। মোদী সরকারের দাবি, সংশ্লিষ্ট আইন মোতাবেক মুসলিম অধ্যুষিত প্রতিবেশী দেশগুলির পীড়িত সংখ্যালঘুকে এ দেশের নাগরিকের মর্যাদা দেওয়ায় কোনো ভুল নেই। অন্যদিকে বিরোধীদের অভিযোগ, সংশ্লিষ্ট আইন মুসলিম সম্প্রদায়ের বিরুদ্ধাচরণ করছে এবং দেশের সংবিধানের ধর্মনিরপেক্ষতার মর্যাদা ক্ষুণ্ণ করছে। সিএএ ও এনআরসি বিরোধী আন্দোলনে জোরদার হওয়ার কারণ, দেশের বৃহত্তর অংশ মনে করছে এনআরসি, সিএএ-র মাধ্যমে প্রথমে চিহ্নিতকরণ করা হবে। তারপর কিছু মানুষের অধিকার কেড়ে নিয়ে তাদের নিশ্চিহ্ন করে দেওয়া হবে। বিভিন্ন অ-বিজেপি শাসিত রাজ্য এনআরসি প্রয়োগ হবে না বলে জানিয়ে দেয়, সেইসঙ্গে এনপিআরের কাজও বন্ধ রাখা হয়েছে বেশ কিছু রাজ্যে।
রাজনৈতিক মহল মনে করছে, জনতা ও বিরোধী রাজনৈতিক দলের আন্দোলনের জেরেই এতদিন সিএএ প্রয়োগ করছে না কেন্দ্র। এমনও অভিযোগ উঠেছে, যে রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীরা এই নীতি ও আইন প্রয়োগ করতে রাজি হয়নি, কেন্দ্রের তরফে তাঁদের সঙ্গেও আলোচনাও হয়নি। যা নিয়ে মঙ্গলবার নিত্যানন্দ রাই জানান, সিএএ-কে কেন্দ্র করে যে ভয়ের সঞ্চার হয়েছে, বিজেপি ও অ-বিজেপি শাসিত রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীদের সঙ্গে তা নিয়ে বিস্তারিত আলোচনার রাস্তা খোলা রাখছে কেন্দ্র।
প্রসঙ্গত, এনআরসি ও সিএএ বিরোধী আন্দোলনের আবহে কিছুদিন আগে দিল্লির এক জনসভা থেকে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী ঘোষণা করেন, ২০১৪ সালে তাঁরা ক্ষমতায় আসার পর থেকে দেশজুড়ে এনআরসি চালুর ব্যাপারে কোনও আলোচনাই হয়নি। তাঁর সেই বার্তা ধরে একাধিক জায়গায় এনআরসির পক্ষে সওয়াল করা কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীও প্রধানমন্ত্রীর মন্তব্যের সমর্থন করেন। অবশেষে এদিন লোকসভায় কেন্দ্রের তরফে ঘোষণা করা হল, দেশজুড়ে এনআরসি করার কোনও সিদ্ধান্ত নেয়নি কেন্দ্র।

ধারাবাহিকভাবে পাশে থাকার জন্য The Bengal Story র পাঠকদের ধন্যবাদ। আমরা শুরু করেছি সাবস্ক্রিপশন অফার। নিয়মিত আমাদের সমস্ত খবর এসএমএস এবং ই-মেইল এর মাধ্যমে পাওয়ার জন্য দয়া করে সাবস্ক্রাইব করুন। আমরা যে ধরনের খবর করি, তা আরও ভালোভাবে করতে আপনাদের সাহায্য আমাদের উৎসাহিত করবে।

Login Support us

You may also like

India Coronavirus Death Toll