করোনা চিকিৎসার জন্য ন্যাশনাল পেনশন সিস্টেম (NPS) এর টাকা আগাম তুলতে পারবেন গ্রাহকরা

অতিমারি করোনার জেরে অভূতপূর্ব পরিস্থিতি দেশে, থমকে অর্থনীতি। মানুষের হাতে কমছে নগদ টাকা। এই পরিস্থিতিতে ন্যাশনাল পেনশন সিস্টেম বা NPS গ্রাহকদের তাঁদের অ্যাকাউন্ট থেকে টাকা ভাঙানোয় ছাড় দেওয়া হল। দেশে সাড়ে ছ’হাজার মানুষ করোনা আক্রান্ত, মৃত্যু হয়েছে ২০০ র বেশি মানুষের। সবচেয়ে বেশি সংক্রমিত হচ্ছেন বয়স্করা। সেই কারণেই করোনা সংক্রমিত হলে চিকিৎসা করানোর জন্য এনপিএস অ্যাকাউন্ট ভাঙিয়ে আংশিক টাকা তোলার সুবিধা দেওয়া হল।
পেনশন ফান্ড রেগুলেটরি অ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট অথরিটি অফ ইন্ডিয়া (PFRDA) একটি সার্কুলার জারি করে জানিয়েছে, করোনা চিকিৎসা ও নিরাময়ে খরচের জন্য তারা আংশিক ছাড় দিচ্ছে এনপিএস উপভোক্তাদের। যেহেতু অতিমারি এই অসুখে মৃত্যু পর্যন্ত হওয়ার আশঙ্কা রয়েছে।
এনপিএস অ্যাকাউন্ট থেকে এই আংশিক টাকা তুলে গ্রাহক প্রয়োজনে নিজের, স্ত্রী, পুত্র-কন্যা, দত্তক নেওয়া পুত্র-কন্যা, বাবা-মা, কেউ যদি করোনা আক্রান্ত হন, তাঁদের চিকিৎসা করতে পারবেন। এমনই তথ্য দেওয়া হয়েছে PFRDA এর জারি করা সার্কুলারে।
পেনশন প্রকল্পে যোগ দেওয়ার ১০ বছর পর গ্রাহকরা তাঁদের অংশের জমা দেওয়া অর্থের ২৫ শতাংশ পর্যন্ত আগাম তুলতে পারেন। সে ক্ষেত্রে তা করের আওতায় আসে না। সন্তানের উচ্চশিক্ষা বা বিবাহ, প্রথম বাড়ি কেনা বা নির্মাণের জন্য, নিজের বা স্ত্রী বা স্বামীর জটিল রোগের চিকিৎসাজনিত কারণে বা নাবালক সন্তানের চিকিৎসার কারণে আগাম অর্থ তোলা যায়। এর জন্য ১৩ টি জটিল রোগের বর্ণনা দেওয়া ছিল। এই ১৩ টি জটিল রোগের ক্ষেত্রেই এনপিএস অ্যাকাউন্ট থেকে আগাম টাকা তোলা যেত। এবার তার সঙ্গে করোনাকে যুক্ত ক রা হল।

 

Comments
Loading...