থিম কেক থেকে নলেন গুড়ের কেক, বড়দিনের কলকাতায় বাড়িতে বসেই অনলাইনে কেক অর্ডার করুন! জমে যাক শীত-পার্বণ!

শীত-শীত আমেজটুকু সবে আলগোছে গায়ে মাখতে শুরু করেছে কলকাতা। জাঁকিয়ে ঠান্ডা? সে এখনও ঢের দেরি! তবু ক্যালেন্ডারে যখন ডিসেম্বরের মাঝামাঝি, তখন উৎসবের মেজাজ কি আর আটকে দেওয়া চলে? আটকায়ওনি। বড়দিন, নতুন বছরের দোরগোড়ায় দাঁড়িয়ে তাই মনটা ইতিমধ্যেই কেক-কেক হয়ে গিয়েছে বাঙালির!
অতএব, চলো কেকের খোঁজে! ফ্লুরিজ, নাহুমস তাদের মনকাড়া সুবাস আর চিরন্তনী বনেদিয়ানা নিয়ে তো আছেই, আর তার সঙ্গেই কলকাতা জুড়ে এখনও অজস্র কেক-পেস্ট্রির ঠিকানা। কারও মুন্সিয়ানা চকোলেট কেকের রকমফেরে, কেউ বা হরেক স্বাদের পেস্ট্রির পসরা সাজিয়ে পরিপাটি। কেউ যদি হয় সাবেক ধাঁচের কেকেই বিশ্বাসী, কেউ আবার নিত্যনতুন থিমের বাহারে চমক লাগাতে ওস্তাদ! তবে যতই ফারাক থাক নাম কিংবা ধামে, সাবেকি চেহারা কিংবা থিমে- কেক মানেই সুস্বাদে-সুগন্ধে মন মাতোয়ারা।

ব্যস! গোল বাধবে তখনই! পছন্দসই কেক তো খাবেন, কিন্তু দোকানে যাওয়ার সময় কই?
ঠিক সেখানেই মুশকিল আসান হয়ে দাঁড়িয়েছে অনলাইন কেকশপগুলো। নেট ঘেঁটে দেখলেই মিলবে অজস্র সাইট। কলকাতার এ দিক সে দিক ছড়িয়ে থাকা দোকানগুলো সাইটেই সাজিয়ে রেখেছে তাদের সম্ভার-ছবি, সাইজ, দামের হালহদিস। তার কোনওটায় কেক বাছাই করতে হবে নির্দিষ্ট মেনুর ভিত্তিতে, কোনওটায় আবার আপনার ইচ্ছে মাফিক, পছন্দসই স্বাদে, সুবাসে, উপকরণে তৈরি করে দেওয়া হবে কেক। সে সব দেখেশুনে অর্ডার দিন অনলাইনেই, কিংবা ফোনে। আপনাকে আর যেতে হবে না কোত্থাও, সাধের কেকই এসে হাজির হবে আপনার বাড়ি। আর যদি এত রকম খুঁটিনাটি সামলে অর্ডার দিতে হিমশিম খান? কুছ পরোয়া নেই। বেশির ভাগ সাইটেই আছে লাইভ চ্যাটের ব্যবস্থা। যেখানে আটকাবেন, সাহায্য নিন দোকানেরই। পছন্দের কেক বেছে নিতে পারেন তাদের পরামর্শেও। সঙ্গে থাকছে নানা ধরনের অফার।
যেমন, উইনি কেক। উইনি ডট ইন-এর সাইট বলছে আপাতত ৪৮২ রকম কেক তাদের পসরায়। বড়দিন, নতুন বছরের কথা মাথায় রেখে তাদের বিশেষ সম্ভারের তালিকায় হাজির চকোলেট ক্রিম, ব্ল্যাক ফরেস্ট, বাটার স্কচ, চকো ভ্যানিলা, রেড ভেলভেট, চকোলিশিয়াস, পাইন্যাপল স্বাদের ক্রিম কেক এবং প্লাম কেক বা রিচ ফ্রুট কেকের সুস্বাদ। অনলাইনে অর্ডার দেওয়ার দু’ঘন্টার মধ্যেই পৌঁছে যাবে বাড়িতে।
শীত-শহরে নানা স্বাদের, নানা ধাঁচের কেকে তাদের ভাঁড়ার সাজিয়েছে ফার্নস অ্যান্ড পেটালস-ও। তাদের সাইট এফএনপি ডটকম-এ বড়দিনের উপহারের তালিকায় রয়েছে ড্রাই কেক উইথ ডেটস অ্যান্ড ওয়ালনাটস, ফ্রুট অ্যান্ড নাট কেক, প্লাম কেক উইথ ক্যাশিউজ, ফ্রুট কেক, ওরিও চকোলেট কেক, চকো চিপ কেক এবং ডেটস অ্যান্ড রেইজিনস, রেড ভেলভেট, ব্লুবেরি ক্রাম্বল, চকো মার্বেল, ডিলিশিয়াস আমন্ড, মিক্সড ফ্রুট, কুকি ক্রাম্বল, ইংলিশ ব্রেকফাস্ট, অরেঞ্জ পপি, হেলদি বেসিল, চেরি সুলতানা, ফিগস অ্যান্ড হানি, হোয়াইট চকোলেট ম্যাকাডেমিয়ার মতো নানা স্বাদের ড্রাই কেক, এবং স্বাস্থ্য সচেতনদের জন্য বিশেষ ভাবে তৈরি মাল্টিগ্রেন ফাইবার বা গ্লুটেন-ফ্রি ওয়ালনাটের মতো হরেক সুস্বাদ। এ সব কেকে মন ভরাতে অবশ্য অর্ডার দিতে হবে অন্তত এক দিন আগে।

নানা ধরনের থিমে কেক বানায় বেলেঘাটার কলকাতা কেক শপ। তাদের সাইট কলকাতাকেক ডটকম-এ নির্দিষ্ট তালিকায় বিভিন্ন স্বাদ আর থিমের পাশাপাশি কেক অর্ডার দিতে পারেন নিজের মনের মতো থিম বা পছন্দসই স্বাদেও। তাদের সাইট কলকাতাকেক ডটকম-এ রয়েছে ভ্যানিলা, র‍্যাস্পবেরি, ব্লুবেরি, এক্সোটিক চকোলেট, কিউই ম্যাঙ্গো, জেমস ট্রাফেল, হোয়াইট চকো, হোয়াইট ফরেস্ট-এর মতো স্বাদের বাহার, রয়েছে ডিম-বিহীন খাঁটি নিরামিষ কেকও। নানা আকারে, হরেক থিমে, এমনকী ফোটো দিয়েও বানানো যায় কেক। বড়দিন-নতুন বছরে সান্তা ক্লস, ক্রিসমাস ট্রি, বেলুনের মতো কেক বানিয়ে নিতেই পারেন দিব্যি!
পার্বণী মেজাজে থিম কেক খুঁজতে পারেন ডিজাইনমাইকেক ডট ইনেও। বড়দিন-নববর্ষে তারা হাজির করছে স্নোম্যান কেক, কোজি ক্রিসমাস, ক্রিসমাস কার্নিভ্যাল, কাপকেক অন কেক, ড্রপকেক-এর মতো মজাদার সব থিম। অর্ডার দিয়ে তৈরি করিয়ে নেওয়া যায় এক্কেবারে নিজস্ব ভাবনার ডিজাইনার কেকও।
তা বলে ফ্লুরিজ কিংবা নাহুম’স বাদ দিয়ে কবেই বা শীত-যাপন সেরেছে কলকাতা? দরকারও তো নেই! সুইগি-জোম্যাটোর মতো ফুড ডেলিভারি সার্ভিসগুলো আছে কী করতে? অতএব সাইট কিংবা অ্যাপে ঢুকে পড়লেই হল! ঐতিহ্যবাহী নাহুম’স-এর জিভে জল আনা প্লাম কেক, রিচ ফ্রুট কেক, প্লেন কেক, বাটার কেক, লাইট হানি প্লাম কেক, ব্ল্যাক ফরেস্ট কেকের চিরকালীন সুস্বাদ কিংবা কলোনিয়াল কলকাতার আভিজাত্য বয়ে চলা ফ্লুরিজের প্লেন ফ্রুট কেক, ব্লুবেরি চিজ কেক, চকো ট্রাফেল কেক, চকোলেট বাটার ক্রিম কেক, চকোলেট হেজেলনাট কেক, ফ্রেশ ক্রিম ব্ল্যাক ফরেস্ট, পাইন্যাপল কিংবা স্ট্রবেরি বাটার ক্রিমের সাহেবিয়ানা এক্কেবারে আঙুলের ডগায়। এবং কয়েকটা ক্লিক পেরিয়ে সোজা বাড়ির দরজায় হাজির! আর শুধু কি তাই! এ শহরে রয়েছে আরও অজস্র বেকারি, রেস্তরাঁ, কফিশপের কেক-পেস্ট্রির পসরা। হরেক ফুড ডেলিভারি সার্ভিসের হাত ঘুরে সে সবও দিব্যি পৌঁছে যাবে দোরগোড়ায়।
এ বার ধরা যাক, আপনি আদ্যোপান্ত বাঙালি। ভিনদেশি কেকের স্বাদেও খোঁজেন বাঙালিয়ানাই! সে ব্যবস্থাও হতেই পারে কিন্তু। সুইসিয়াম কনসেপ্ট ফুড কিংবা আপনার পছন্দমতো উপকরণে কেক বানিয়ে দেওয়া সাইটগুলোতে আলাদা করে অর্ডার দিয়ে দেখতে পারেন। ফুড ডেলিভারি অ্যাপগুলোয় ঘেঁটে দেখতে পারেন বিভিন্ন জায়গার মেনুকার্ড। একান্তই না পেলে ইন্টারনেট সার্চে মিলবে নলেন গুড়ের কেকের বেশ কিছু ডিটেল রেসিপি। দরকার শুধু উপকরণগুলো, আর আপনার একটুখানি উদ্যম। ব্যস! নলেন গুড়ের খাঁটি বাঙালিয়ানায় জমে যাবে বাহারি কেকের আড্ডা।
অতঃপর?
দোকানে পৌঁছনোর সময় নেই? পরোয়াও নেই।
সুস্বাদে-সুবাসে কাটুক বাড়িতে বসেই।
কেক-পার্বণে আপনি স্বাগত!

 

Comments
Loading...