সাধারণ নাগরিকের কম্পিউটারের ওপর কেন্দ্রের নজরদারি ফরমানের বিরুদ্ধে জনস্বার্থ মামলা দায়ের সুপ্রিম কোর্টে

গত ২০ ডিসেম্বর কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রক এক বিজ্ঞপ্তি জারি করে জানিয়েছে, এবার থেকে ইনফরমেশন টেকনোলজি অ্যাক্টের আওতায় দেশের যে কোনও নাগরিকের কম্পিউটার, ল্যাপ্টপ, মোবাইল স্মার্ট ফোনে নজরদারি চালাতে পারবে ১০ কেন্দ্রীয় সংস্থা। দেশের নিরাপত্তার কারণ দেখিয়ে ওই নোটিশে আরও বলা হয়েছে, অনলাইন অফলাইন সব তথ্যেই ওই নজরদারি চালানো যাবে, প্রয়োজনে বাজেয়াপ্ত করা যাবে সেই সকল ডিজিটাল ডেটা, কম্পিউটার ডেটা ও এনক্রিপটেড তথ্যগুলিও। কেন্দ্রের নরেন্দ্র মোদী সরকারের এই নয়া ফরমানের বিরুদ্ধে ইতিমধ্যেই সরব হয়েছে দেশের বিরোধী দলগুলি। নাগরিকদের গণতান্ত্রিক মত প্রকাশের স্বাধীনতা ও ব্যক্তি পরিসরে এর মাধ্যমে হস্তক্ষেপের চেষ্টা হচ্ছে বলে সরব অনেকেই।
এবার কেন্দ্রের এই সিদ্ধান্তকে চ্যালেঞ্জ করে জনস্বার্থ মামলা দায়ের হল সুপ্রিম কোর্টে। সোমবার জনৈক মনোহর লাল শর্মা নামে এক আইনজীবী সুপ্রিম কোর্টে কাছে  এই পিআইএল এর মাধ্যমে কেন্দ্রের জারি করা নির্দেশ বাতিল করার আবেদন জানিয়েছেন। নিজের এই আবেদনে ওই আইনজীবী কেন্দ্রের এই নির্দেশকে বেআইনি এবং অসংবিধানিক বলে উল্লেখ করেছেন। যে কোনও কেন্দ্রীয় সংস্থা সন্দেহভাজন ব্যক্তির বিরুদ্ধে যখন খুশি তদন্ত চালাতে ও ফৌজদারি ধারা প্রয়োগ করতে পারবে বলে নোটিশে যে ঘোষণা করা হয়েছে তারও বিরোধিতা করেছেন ওই আইনজীবী।
আবেদনে ওই আইনজীবী জানিয়েছেন, আসন্ন সাধারণ নির্বাচনের আগে একনায়কের মতো সকলকে নিজের দাসে পরিণত করতে, রাজনৈতিক বিরোধী ও বিরুদ্ধ মতকে চাপা দিতেই কেন্দ্রের এই সিদ্ধান্ত, যা ভারতের সংবিধান বিরোধী। এই নোটিশ ব্যক্তি গোপনীয়তার অধিকারের পরিপন্থী বলেও আদালতকে জানিয়েছেন আবেদনকারী।

Comments
Loading...