বিরাট, রোহিত, ধোনিদের ছেড়ে বিশ্বকাপের জন্য শুধু রবীন্দ্র জাদেজাকেই কেন শুভেচ্ছা জানালেন মোদী?

সোমবারই বিশ্বকাপের জন্য ১৫ জনের ভারতীয় দল ঘোষণা হয়েছে। ৮৩ র পর ফের একবার ইংল্যান্ড থেকে বিশ্বকাপ ট্রফি ছিনিয়ে আনতে তৈরি ভারতীয় দল। কিন্তু বিশ্বকাপের দলে থাকা তারকাদের কি আসন্ন কঠিন লড়াইয়ের জন্য শুভেচ্ছা জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী? ভোট দিতে যাওয়ার আহ্বান হোক কিংবা যোগা চ্যালেঞ্জ, নরেন্দ্র মোদী নির্দ্বিধায় ট্যাগ করতেন অধিনায়ক বিরাট কোহলিকে। এমনকী বিরুষ্কার বিয়েতেও আমন্ত্রিত ছিলেন মোদী। তাহলে চূড়ান্ত দল ঘোষণার পর নিশ্চয়ই মোদীর শুভেচ্ছা বার্তা পেয়েছেন ক্যাপ্টেন! কিন্তু না। দেশের প্রধানমন্ত্রী, অধিনায়ক কোহলি, সহ অধিনায়ক রোহিত শর্মা কিংবা ক্যাপ্টেন কুল মহেন্দ্র সিংহ ধোনি, কাউকেই শুভেচ্ছা জানাননি। অভিনন্দন জানিয়েছেন কেবল একজনকেই। তিনি রবীন্দ্র জাডেজা। কিন্তু শুধু জাডেজাকেই কেন? এর উত্তর লুকিয়ে পদ্মফুলের পাপড়ির ভাঁজে ভাঁজে, এমনটাই বলছেন রসিক নেটিজ়েনরা।
মাত্র ক’দিন আগেই বিজেপিতে যোগ দিয়েছিলেন রবীন্দ্র জাডেজার স্ত্রী রিভাবা। তারপরই একটি ট্যুইট করেছিলেন রবীন্দ্র জাডেজা। সেখানে সরাসরি বিজেপিকে সমর্থন জানিয়েছিলেন তিনি। নিজের স্ত্রী রিভাবা ছাড়াও তাতে ট্যাগ করেছিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে।

সোমবার বিশ্বকাপের দল ঘোষণার পর দেখা যায় নাম রয়েছে জাডেজার। এরপরই গুজরাতের জামনগরের আদত বাসিন্দা রবীন্দ্র জাডেজার করা বিজেপিকে সমর্থন জানানোর ট্যুইটটিকে রিট্যুইট করেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। তাতে বিজেপিকে সমর্থন করায় ধন্যবাদ জানানোর পাশাপাশি বিশ্বকাপের স্কোয়াডে জায়গা পাওয়ায় জাডেজাকে শুভেচ্ছাও জানিয়েছেন নরেন্দ্র মোদী।

সূত্রের খবর, রবীন্দ্র জাডেজার স্ত্রী মেকানিক্যাল ইঞ্জিনিয়র রিভাবা, কর্ণি সেনার গুজরাত মহিলা শাখার প্রধান ছিলেন। পদ্মাবতী ছবি নিয়ে দেশের বিভিন্ন অংশে হিংসাত্মক প্রতিবাদ দেখানোর অভিযোগ রয়েছে এই কট্টর সংগঠনটির বিরুদ্ধে। বিভিন্ন সময় কর্ণি সেনাকে নিষিদ্ধ ঘোষণা করারও দাবি উঠেছে। এদিকে গত রবিবারই গুজরাতে হার্দিক প্যাটেলের উপস্থিতিতে কংগ্রেসে যোগ দিয়েছেন রবীন্দ্র জাডেজার বোন এবং বাবা।
কিন্তু বিশ্বকাপের দলে নির্বাচিত ১৪ জনকে ছেড়ে শুধু রবীন্দ্র জাডেজা কেন? তাহলে কি বিজেপিকে প্রকাশ্য সমর্থনের ট্যুইট করেই বাজিমাত করলেন জাডেজা? এর আগে বহুবার বিশ্বকাপে অংশ নিয়েছে ভারত। কিন্তু প্রধানমন্ত্রী কোনওদিন নির্দিষ্ট কোনও খেলোয়াড়কে অভিনন্দন বার্তা দিয়েছেন, এমনটা আগে শোনা যায়নি। তাহলে এবার এইরকম অভূতপূর্ব ব্যাপার ঘটল কীভাবে? কোহলি, ধোনি, রোহিত, শিখর ধওয়ানদের টপকে খোদ প্রধানমন্ত্রীর শুভেচ্ছা বার্তার নেপথ্য রহস্য কি লুকিয়ে পদ্মের ভাঁজে? প্রশ্নটা কিন্তু উঠছে।

Comments
Loading...