যোগী রাজ্যে দুষ্কৃতীদের হাতে পুলিশ খুন! গুরুতর আহত আরও এক

অবৈধ মদের কারখানা বন্ধ করতে গিয়ে দুষ্কৃতীদের গুলিতে মৃত্যু হল এক পুলিশ কর্মীর। উত্তরপ্রদেশে কাশগঞ্জ জেলার নাগলা ধীমের গ্রামের ঘটনা। ওই এলাকায় অবৈধ মদের কারখানা গড়ে উঠেছিল। এই নিয়ে এলাকাবাসীরা আপত্তি জানিয়ে আসছিল দীর্ঘদিন ধরে। মঙ্গলবার পুলিশ ওই কারখানা বন্ধ করতে যায়। অভিযোগ পুলিশকে লক্ষ্য করে গুলি চালাতে থাকে একদল দুষ্কৃতী। দুষ্কৃতীদের গুলিতে মৃত্যু হয় দেবেন্দ্র নামের এক কনস্টেবেলের। আহত হন সাব ইনস্পেক্টর অশোক কুমার। ঘটনায় তদন্তের নির্দেশ দিয়েছেন উত্তর প্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদত্যনাথ।

মঙ্গলবারের এই ঘটনার পরেই বিশাল পুলিশবাহিনী ঘটনাস্থলে যায়। কয়েকঘন্টা এনকাউন্টার চলার পর পুলিশের গুলিতে মৃত্যু হয় এক দুষ্কৃতীর। কিন্তু মূল অভিযুক্তকে এখনও খুঁজে পাওয়া যায়নি। যার খোঁজে তল্লাশি চলছে বুধবারও।

জানা গিয়েছে, উত্তরপ্রদেশের কাশগঞ্জ জেলার নাগলা ধীমের গ্রামে অবৈধ মদের কারখানা গড়ে উঠেছিল। পুলিশের পক্ষ থেকে ওই কারখানা বন্ধ করার জন্য বারবার বলা হলেও কোনও কাজ হয়নি। মঙ্গলবার কারখানা বন্ধ করতে গ্রামে যায় সাব ইন্সপেক্টর অশোক ও কনস্টেবল দেবেন্দ্র। গ্রামে ঢুকতেই তাঁদের ওপর অস্ত্র নিয়ে চড়াও হয় দুষ্কৃতীরা। দুই পুলিশকর্মীকে বেঁধে রেখে মারধর করা হয়। ঘটনাস্থলেই কন্সস্টেবলের মৃত্যু হয়। গুরুতর জখম অবস্থায় সাব ইন্সপেক্টর অশোক পালিয়ে গিয়ে পুরো ঘটনার কথা জানান উচ্চ পদাধিকারীদের।

[আরও পড়ুন- নিউজ পোর্টাল NewsClick এর দফতরে ED’র তল্লাশি, মুখবন্ধের চেষ্টা? প্রশ্ন উঠছে]

ঘটনার খবর প্রকাশ্যে আসতেই যোগী আদিত্যনাথের কার্যালয় থেকে পুরো ঘটনায় তদন্তের নির্দেশ দেওয়া হয়। অপরাধীদের বিরুদ্ধে জাতীয় সুরক্ষা আইনে মামলা দায়ের করার কথা জানানো হয়। এরপর রাতভর বিশাল পুলিশ বাহিনী নিয়ে তল্লাশি চলে। এই অভিযানে পুরো গ্রাম ঘিরে ফেলা হয়। পুলিশের গুলিতে বেআইনী মদ কারখানার সঙ্গে যুক্ত মূল চক্রীর ভাইয়ের মৃত্যু হয়।

এই ঘটনা গত বছর উত্তরপ্রদেশের মাফিয়া বিকাশ দুবের স্মৃতি উসকে দিল। বিকাশ দুবেকে গ্রেফতার করতে গিয়ে প্রাণ হারিয়েছিলেন ৭ জন পুলিশ কর্মী। পরে গ্রেফতার হন বিকাশ দুবে। পুলিশি হেফাজত থেকে পালানোর চেষ্টা করতেই গাড়ি উলটে তার মৃত্যু হয়।

এদিনের এই ঘটনায় সাব ইনস্পেক্টর অশোকের চিকিৎসার পুরো দায়িত্ব নিয়েছেন যোগী আদিত্যনাথ। মৃত কনস্টেবল দেবেন্দ্রর পরিবারকে ৫০ লক্ষ টাকা ক্ষতিপূরণ এবং তাঁর পরিবারের এক জনকে চাকরি দেওয়ার ঘোষণা করেছেন উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী।

Comments
Loading...