Post Office Recurring: মাসে ১০ হাজার টাকা জমা, রিটার্ন ১৬ লক্ষেরও বেশি! ন্যূনতম ডিপোজিট ১০০ টাকা

বিনিয়োগে ঝুঁকি নিতে চান না কিন্তু কম অঙ্কের বিনিয়োগে বেশি রিটার্ন চান? আপনার জন্য আকর্ষণীয় স্কিম হতে পারে পোস্ট অফিস রেকারিং ডিপোজিট বা RD৷ এই স্কিমে একাধিক সুবিধা পাবেন গ্রাহকরা। পোস্ট অফিস রেকারিং ডিপোজিট স্কিমের বিশেষ সুবিধা হল ছোট ছোট কিস্তিতে সুদের হার ও সরকারি গ্যারান্টি স্কিম। মাসে ন্যূনতম ১০০ টাকা বিনিয়োগ করতে পারেন পোস্ট অফিস আরডি স্কিমে। বিনিয়োগের কোনও ঊর্ধ্বসীমা নেই। যেমন মাসে মাসে ১০ হাজার টাকা বিনিয়োগ করে আপনি পেতে পারেন ১৬ লক্ষ টাকা রিটার্ন!

পোস্ট অফিস রেকারিং ডিপোজিট স্কিমের জন্য যা করণীয়: পোস্ট অফিসে কমপক্ষে পাঁচ বছরের জন্য একটি RD অ্যাকাউন্ট খুলতে হবে। রেকারিং ডিপোজিটে সুদের হার ত্রৈমাসিকের হিসেবে দেওয়া হয় ৷ এতে প্রত্যেক তিন মাস শেষে অ্যাকাউন্টে জমা টাকার উপর কম্পাউন্ড ইন্টারেস্ট যোগ করে দেওয়া হয়। পোস্ট অফিসের ওয়েবসাইট অনুযায়ী, RD স্কিমে বর্তমানে সুদের হার ৫.৮ শতাংশ। এই বছর জুলাই মাস থেকেই প্রযোজ্য হয়েছে নয়া সুদের হার।

মাসে ১০ হাজার বিনিয়োগে ১৬ লক্ষ টাকা রিটার্ন: পোস্ট অফিস রেকারিংয়ে মাসিক ১০,০০০ টাকা ইনভেস্ট করা যায়, তা হলে ১৬ লক্ষেরও বেশি টাকা পাওয়া যাবে। তার জন্য রেকারিং ডিপোজিট স্কিমে ১০ বছর পর্যন্ত যদি প্রতি মাসে ১০,০০০ টাকা ইনভেস্ট করতে হবে।তা হলেই ম্যাচিওরিটির সময়ে প্রায় ১৬.২৮ লক্ষ টাকা পাওয়া যাবে। 

তবে একটা বিষয় মাথায় রাখতে হবে। যদি যথাসময়ে RD ইনস্টলমেন্ট ডিপোজিট না করা হয়, তা হলে ফাইন দিতে হবে। ইনস্টলমেন্টে দেরি হলে প্রতি মাসে এক শতাংশ (১০০ টাকায় ১ টাকা) করে পেনাল্টি হিসেবে দিতে হবে। পাশাপাশি যদি পর পর চারটি ইনস্টলমেন্ট জমা না দেওয়া হয়, তা হলে ওই অ্যাকাউন্ট বন্ধ হয়ে যাবে। একবার অ্যাকাউন্ট বন্ধ হয়ে গেলে, পরের দু’মাসের মধ্যে তা আবার অ্যাক্টিভেট করা যেতে পারে।

Comments
Loading...