মোদীকে কটাক্ষ করে পোস্টার! দিল্লি পুলিশের হাতে গ্রেফতার ৯

অফিসাররা জানান, এই সংক্রান্ত একাধিক এফআইআর থানায় জমা পড়েছে

প্রধানমন্ত্রীকে কটাক্ষ করে পোস্টার মারার অভিযোগে দিল্লি পুলিশ ৯ জনকে গ্রেফতার করল। বৃহস্পতিবার একই অভিযোগে পূর্ব দিল্লির কল্যাণপুরী থেকে চার জনকে গ্রেফতার করে দিল্লি পুলিশ।

দিল্লি পুলিশ সূত্রে খবর, ধৃত চারজন পূর্ব দিল্লির কল্যাণপুর এলাকায় প্রধানমন্ত্রীকে কটাক্ষ করা কিছু পোস্টার মারছিলেন, সেই সময় ওই চারজনকে গ্রেফতার করা হয়।

এক পুলিশকর্মী জানান, মোদীজি আমাদের বাচ্চাদের জন্য বরাদ্দ ভ্যাকসিন আপনি কেন বিদেশে পাঠিয়ে দিলেন? এই প্রশ্ন সম্বলিত পোস্টার মারছিলেন ধৃতরা। তিনি আরও বলেন, ধৃতরা জানিয়েছেন তাঁরা আমি আদমি পার্টির কাউন্সিলর ধীরেন্দ্র কুমারের নির্দেশে এই পোস্টার মারছিলেন।

আপে’র ওই কাউন্সিলর জানিয়েছেন, এমন কোনও ঘটনার কথা তিনি জানেন না। ওই পুলিশ অফিসার জানান, দিল্লির বিভিন্ন জায়গাতেই এ ধরনের পোস্টার পড়েছে। এই সংক্রান্ত একাধিক অভিযোগ পুলিশকে করা হয়।

অফিসার আরও জানান, এই সংক্রান্ত একাধিক এফআইআর থানায় জমা পড়েছে। নির্দিষ্ট এফআইআরের ভিত্তিতে চার জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। আরও তিনটি পৃথক এফআইআর করা হয় দিল্লি পুলিশের কাছে। নর্থ ইস্ট দিল্লিতে তিনটি এফআইআর করা হয়। যার জেরে দু’জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। সেই সঙ্গে একটি এফআইআর করা হয়েছে নর্থ দিল্লিতে, গ্রেফতার হয়েছেন একজন, দ্বারকা থেকে পুলিশের হাতে গ্রেফতার হয়েছে দু’জন। দুটি এফআইআর করা হয়েছে রোহিনীতে, একটি করে করা হয়েছে সেন্ট্রাল এবং ওয়েস্ট দিল্লিতে।

ইস্ট ডিস্ট্রিক্ট পুলিশের ডিসিপি সঞ্জয় শেরাওয়াত জানান, কল্যাণপুর থেকে গ্রেফতার হওয়া ওই চারজন ব্যক্তি হলেন, দালিপ লাল (৩৫), শিভম দুবে ( ২৭), রাহুল ত্যাগী (২৪) এবং রাজীব কুমার (১৯)।

অন্যদিকে শুক্রবার করোনা সংক্রান্ত ওষুধ পথ্য বেআইনি ভাবে বণ্টনের অভিযোগে দিল্লির যুব কংগ্রেস সভাপতি শ্রীনিবাস বি ভি কে পুলিশ জিজ্ঞাসাবাদ করে। যুব কংগ্রেসের এই নেতা করোনা রোগীদের সাহায্য করতে নানা রকম কাজ করছেন। শ্রীনিবাস বি ভিকে পুলিশি জিজ্ঞাসাবাদের পর তোলপাড় শুরু হয়ে যায়। দিল্লি পুলিশ জানায়, অভিযোগের ভিত্তিতে কেবল শ্রীনিবাসকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়েছে, এর বেশি কিছু হয়নি। এই পরিস্থিতিতে করোনা মোকাবিলায় প্রধানমন্ত্রীর ব্যর্থতার দাবি করে কিছু পোস্টার মারার দায়ে গ্রেফতার হয়ে গেলেন ৯ জন।

Comments
Loading...