২০১৯ লোকসভা ভোটে লড়বেন জানিয়ে অভিনেতা প্রকাশ রাজের ট্যুইট, ‘আব কি বার জনতা কি সরকার’

সাংবাদিক গৌরী লঙ্কেশের খুনের পর সরাসরি মোদী সরকার এবং হিন্দুত্ববাদী সংগঠনের সমালোচনা করেছেন। আবার এরাজ্যে এসে যোগ দিয়েছেন সিপিএমের যুব সংগঠন ডিওয়াইএফআই-এর কর্মসূচিতে। কন্নড় এবং তামিল সিনেমার জনপ্রিয় এবং জাতীয় পুরস্কারপ্রাপ্ত এই অভিনেতা প্রকাশ রাজ এবার রাজনীতিতে নামার কথা ঘোষণা করলেন।
২০১৯ লোকসভা নির্বাচনে প্রার্থী হতে চলেছেন প্রকাশ রাজ। একথা নিজেই ট্যুইট করে জানালেন তিনি। ট্যুইটারে নতুন বছরে তাঁর নয়া পদক্ষেপের কথা ঘোষণা করে প্রকাশ রাজ লেখেন, নির্দল প্রার্থী হিসেবে আগামী নির্বাচনে দাঁড়াতে চলেছেন তিনি। ২০১৪ সালের বিজেপির নির্বাচনী প্রচার, ‘আব কি বার, মোদী সরকার’ স্লোগানকে কটাক্ষ করে প্রকাশ লেখেন, ‘আব কি বার, জনতা কি সরকার’। তবে এসম্পর্কে বাকি তথ্য পরে জানাবেন বলে ট্যুইটে জানিয়েছেন তিনি।

অভিনেতা প্রকাশ রাজ যে সক্রিয়ভাবে রাজনীতিতে যোগ দিচ্ছেন গত এক বছর ধরে তার ইঙ্গিত পাওয়া যাচ্ছিল। বিভিন্ন সময়ে কেন্দ্রের মোদী সরকার এবং তামিলনাডুর এআইএডিএমকে সরকারকে আক্রমণ করেন তিনি। বারবার অতি ডানপন্থী এবং হিন্দুত্ববাদী সংগঠনের নিন্দা করেছেন।
সাংবাদিক গৌরী লঙ্কেশের খুনের পর ডানপন্থীদের সমালোচনা করেন প্রকাশ রাজ। অক্টোবর মাসে এরাজ্যে এসে ডিওয়াইএফআই’এর সভায় গৌরী লঙ্কেশের মৃত্যু প্রসঙ্গে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর নীরবতার কড়া সমালোচনা করে প্রকাশ বলেন, সোশ্যাল মিডিয়ায় কয়েকজন হিন্দুত্ববাদী গৌরীর মৃত্যুর ঘটনাকে সমর্থন করছেন। আর ওই অ্যাকাউন্টগুলি আবার মাননীয় প্রধানমন্ত্রী ‘ফলো’ করেন। তিনি মোদীকে তাঁর চেয়েও ভাল অভিনেতা বলে কটাক্ষ করেন। উত্তর প্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথকে দিতে চেয়েছিলেন ‘সেরা অভিনেতার পুরস্কার’।
২০১৮ সালের ১ লা জানুয়ারি প্রকাশ ঘোষণা করেছিলেন, সাম্প্রদায়িক শক্তি দেশে অধিক মাত্রায় সক্রিয় হয়ে উঠেছে। এর ফলাফল ভয়াবহ হবে। কেউ তাঁকে চ্যালেঞ্জ জানালে নির্বাচনে দাঁড়াবেন বলে জানিয়েছিলেন তিনি। ঠিক এক বছর পর নববর্ষের দিন তিনি ঘোষণা করলেন নির্বাচনে প্রার্থী হওয়ার কথা।
যদিও, গত বছরের নভেম্বরে প্রকাশ রাজ সাংবাদিকদের বলেন, অভিনেতাদের কাজ এন্টারটেন করা। তিনি তাঁর অভিনেতা সত্ত্বা নিয়েই খুশি, রাজনীতিতে যোগ দেওয়ার কোনও পরিকল্পনা নেই। তিনি মন্তব্য করেছিলেন, দেশের কোনও রাজনৈতিক দলের প্রতি আস্থাশীল নন।
কিন্তু, স্টারলাইট আন্দোলন ইস্যুতে তামিলনাডুর এআইডিএমকে সরকারের ভূমিকার নিন্দা করেছিলেন। সাবরীমালা ইস্যুতে বিজেপির বিরুদ্ধে মুখ খুলেছেন প্রকাশ রাজ। মিটু মুভমেন্টের পাশে দাঁড়িয়ে বলেছিলেন, কর্মক্ষেত্রে মহিলাদের শারীরিক ও মানসিক হেনস্থা বড় ধরনের অপরাধ।
অভিনেতা, চিত্র পরিচালক এবং প্রযোজক প্রকাশ রাজ তাঁর কাজের ছাপ রেখেছেন কন্নড় থেকে তামিল সিনেমা হয়ে বলিউডে। ‘ইরুভার’, ‘আন্থাপুরম’ এবং ‘কাঞ্জিভরম’ সিনেমায় অভিনয়ের জন্য পেয়েছেন জাতীয় পুরস্কার। মোদী সরকারের বিরুদ্ধে মুখ খোলায় তাঁর কাজ কমে আসছে বলেও অভিযোগ করেছেন তিনি।

Comments
Loading...