‘পিছু যদি নাই হটবেন, তবে সিএএ-এনআরসি চালু করছেন না কেন?’, অমিত শাহকে পাল্টা চ্যালেঞ্জ প্রশান্ত কিশোরের

লখনউয়ের সভায় দাঁড়িয়ে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর হুঙ্কার ছিল, প্রতিবাদ, প্রতিরোধ পরোয়া করি না, সিএএ থেকে পিছু হটার প্রশ্ন নেই। পাশাপাশি সিএএ নিয়ে বিতর্কে বসার চ্যালেঞ্জ জানিয়েছিলেন মমতা সহ বিরোধীদের। অমিত শাহের এই বক্তব্যকে তীব্র কটাক্ষ ছুড়ে দিলেন ভোট কুশলী প্রশান্ত কিশোর। লিখলেন, জনতার আন্দোলনকে যদি পাত্তা না দেন তাহলে দেশবাসীর কাছে আপনি যেমন উদ্ধত ভঙ্গীতে ক্রোনোলজি বা কালক্রমিকভাবে সিএএ ও এনআরসি জারির কথা বলেছিলেন, তা করছেন না কেন?

লখনউয়ের সভায় দাঁড়িয়ে সদ্য প্রাক্তন বিজেপি সভাপতি দেশজুড়ে ঘটে চলা গণআন্দোলনকে কার্যত উড়িয়ে দিয়েছিলেন। বলেছিলেন যতই প্রতিবাদ হোক, সিএএ ফিরিয়ে নেওয়ার প্রশ্নই নেই। অমিত শাহের লখনউয়ের জনসভায় বলা কথার সূত্র ধরেই এবার প্রশান্ত কিশোরের ট্যুইটার হ্যান্ডেল থেকে পাল্টা কটাক্ষ ছুড়ে দেওয়া হল। পাশাপাশি প্রশান্ত কিশোর লিখলেন, নাগরিকদের বিরোধিতাকে উড়িয়ে দেওয়া কোনও সরকারের শক্তির পরিচয় হতে পারে না অমিত শাহজি। তারপরই অমিত শাহকে তীব্র কটাক্ষের ভাষায় প্রশান্ত লিখেছেন, যারা সিএএ, এনআরসি নিয়ে প্রতিবাদ করছেন, আপনি যদি তাদের পরোয়া না করেন, তাহলে দেশবাসীকে উদ্ধত ভঙ্গীতে আপনি যে ক্রোনোলজি অনুসারে সিএএ এবং এনআরসি চালুর কথা বলেছিলেন, তা এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছেন না কেন?

নয়া নাগরিকত্ব আইন হয়েছে ঠিকই। কিন্তু যে এনআরসি নিয়ে স্পষ্ট কোনও দিশা দেখাতে পারেনি মোদী সরকার। অমিত শাহ নিয়ম করে সারা দেশে এনআরসি হবে তা বলে চলছিলেন, কলকাতায় এসেও জানিয়েছিলেন, ক্রোনোলজি অনুযায়ী বা কালক্রমিকভাবে প্রথমে আসবে সিএএ, তার পিছু পিছু আসবে এনআরসি। কিন্তু সম্প্রতি আচমকাই দিল্লির রামলীলা ময়দানে মোদী জানান, এনআরসি নিয়ে তার সরকারে কোনও আলোচনাই হয়নি। যা নিয়ে তৈরি হয়েছে বিপুল বিভ্রান্তি। এবার তাকেই হাতিয়ার অমিত শাহকে কটাক্ষ করলেন মমতা-কেজরিওয়ালের নির্বাচনী স্ট্র্যাটেজিস্ট প্রশান্ত কিশোর।

Comments
Loading...