প্রবল সঙ্কটে ভারতের মিডিয়া, সাংবাদিকদের পাশে দাঁড়াতে পারছি না, প্রেস কাউন্সিল থেকে পদত্যাগ বি আর গুপ্তার

সংবাদমাধ্যমের হালফিলের সঙ্কট এবার ছায়া ফেলল প্রেস কাউন্সিলের অন্দরেও। কাজ করা সম্ভব হচ্ছে না। এই কারণ দেখিয়ে এবার প্রেস কাউন্সিল অফ ইন্ডিয়া বা PCI এর সদস্যপদ ত্যাগ করলেন বি আর গুপ্তা। সংবাদসংস্থা পিটিআই সূত্রে খবর, তিনি পদত্যাগ পত্র জমা দিয়েছেন। ভারতে সংবাদমাধ্যম প্রবল সঙ্কটের মধ্যে দিয়ে যাচ্ছে, মন্তব্য বি আর গুপ্তার।

বি আর গুপ্তা ভোপালের একটি সংবাদমাধ্যম গোষ্ঠীর গ্রুপ এডিটর। তিনি জানিয়েছেন, PCI এর দায়িত্ব সংবাদমাধ্যম এবং তার কর্মীদের প্রতিনিয়ত উৎসাহ দান করা। তাঁর প্রশ্ন, তা কি করা হচ্ছে? সাংবাদিকদের পাশে আদৌ দাঁড়াতে পারছি কি? তিনি বলছেন, আমরা সবাই বুঝতে পারছি সংবাদমাধ্যম এক অভূতপূর্ব সঙ্কটজনক অবস্থার মধ্যে দিয়ে যাচ্ছে। যে উদ্দেশে কাউন্সিল গঠন তা অপূর্ণ থেকে যাচ্ছে এবং এই পরিস্থিতিতে আমিও এমন কিছু দৃষ্টান্তমূলক করে উঠতে পারছি না যাতে সংবাদমাধ্যমের স্বাধীনতা বজায় থাকে। বলছেন পদত্যাগী সদস্য বিআর গুপ্তা। বর্তমান প্রেক্ষাপটে প্রেস কাউন্সিল আর সামগ্রিকভাবে দেশের সংবাদমাধ্যমের প্রতিনিধিত্ব করার জায়গায় নেই বলেও দাবি করেছেন তিনি।

করোনা পরিস্থিতির মধ্যে সাংবাদিকদের বেতনে কোপ কিংবা বিপুল ছাঁটাইয়ের ঘটনার দিকে ইঙ্গিত করে তিনি বলছেন, সংবাদমাধ্যমের কর্মীরা আজ সামাজিক, রাজনৈতিক এবং অর্থনৈতিক সুবিচারের আশায় দোরে দোরে ঘুরছেন। কী লাভ যদি সাংবাদিকদের পাশেই দাঁড়াতে না পারি? বক্তব্য পদত্যাগী সদস্যের।

নিউজ পোর্টাল TheWire এর প্রতিবেদনে দাবি করা হয়েছে, কাউন্সিলের চেয়ারম্যান বিচারপতি সি কে প্রসাদ জানিয়েছেন বি আর গুপ্তার ইস্তফা পত্র এখনও গৃহীত হয়নি। ২০১৮ সালের ৩০ মে বি আর গুপ্তাকে ৩ বছরের মেয়াদে কাউন্সিলের সদস্য নিযুক্ত করা হয়েছিল।

যদিও সূত্রের খবর, বি আর গুপ্তা ইস্তফার সিদ্ধান্তেই অনড়। তিনি বলছেন, পরিস্থিতি এমন হয়েছে যেখানে নিজের নিরপেক্ষ এবং দায়িত্বপূণ ভাবমূর্তি বজায় রেখে নাগরিক এবং সংবাদমাধ্যমকে সহায়তা করা সম্ভব হচ্ছিল না। আর তা না পারলে আখেরে গণতন্ত্রই ক্ষতিগ্রস্ত হয়। তাই সরে দাঁড়াচ্ছি।

Comments
Loading...