রঘুরাম রাজন: রাজনৈতিক ও সামাজিক অ্যাজেন্ডা পূরণেই মোদী সরকারের আগ্রহ, অর্থনীতি নিয়ে ততটা উদ্যোগ নেই

অর্থনীতির চেয়ে রাজনৈতিক ও সামাজিক অ্যাজেন্ডা পূরণেই আগ্রহ বেশি সরকারের। দেশের টালমাটাল অর্থনীতি নিয়ে মোদী সরকারকে ফের একহাত নিলেন আরবিআই-র প্রাক্তন গভর্নর রঘুরাম রাজন।
সম্প্রতি ব্লুমবার্গ টিভির এক সাক্ষাৎকারে ভারতীয় অর্থনীতি নিয়ে বেশ কিছু প্রশ্নের জবাব দেন আন্তর্জাতিক অর্থ ভাণ্ডারের (আইএমএফ) প্রাক্তন মুখ্য অর্থনীতিবিদ রঘুরাম রাজন। তাঁর কথায়, দুর্ভাগ্যবশত, বর্তমান সরকার বিশাল জনসমর্থন নিয়ে ভোটে জেতার পর নিজেদের রাজনৈতিক ও সামাজিক অ্যাজেন্ডা পূরণেই মন দিয়েছেন, দেশের অর্থনৈতিক সমৃদ্ধি নিয়ে তাদের তেমন উদ্যোগ নেই।
ভারতের অর্থনৈতিক বৃদ্ধি তলানিতে ঠেকে যাওয়া, অধিকাংশ সেক্টরে তীব্র মন্দার জন্য ফের প্রথম মোদী সরকারের নোটবন্দি ও জিএসটি নীতির কড়া সমালোচনা করেন রাজন। শিকাগো বুথ স্কুল অফ বিজনেসের অধ্যাপক রঘুরাম রাজনের কথায়, নোটবন্দি ও গুডস অ্যান্ড সার্ভিসেস ট্যাক্স (জিএসটি) সংস্কার আনার পর থেকে ভারতের অর্থনীতিতে মন্দা আরও ত্বরান্বিত হয়েছে।

আরও জানতে ক্লিক করুন, আকাশ ছোঁয়া মূর্তি না বানিয়ে আধুনিক স্কুল তৈরি করুন, কেন বলেছিলেন রঘুরাম রাজন?

গত শুক্রবার সরকারি তথ্য জানিয়েছে, ডিসেম্বর ত্রৈমাসিকে ৪.৭ শতাংশে নেমে এসেছে জিডিপি বৃদ্ধির হার যা, গত সাত বছরের মধ্যে সর্বনিম্ন। এই জিডিপি বৃদ্ধির তথ্য প্রকাশ হওয়ার আগেই রঘুরাম রাজনের ওই সাক্ষাৎকার সম্প্রচার করা হয়। সেখানে আরবিআই-র প্রাক্তন গভর্নর বলেন, অর্থনৈতিক সেক্টরে ভারত যথাযথ মনোযোগ দিচ্ছে না। দুর্ভাগ্যবশত, এই কারণেই আর্থিক বৃদ্ধি ক্রমান্বয়ে কমে চলেছে। তাঁর মতে, দেশের অর্থনীতির দিকে সরকার যদি নজর দেয়, ঠিকঠাক পদক্ষেপ করে, তাহলে এখনও ভারতের অর্থনীতির উন্নতি সম্ভব।
পাশাপাশি বিশ্বব্যাপী করোনাভাইরাসের থাবায় অর্থনৈতিক সমস্যা নিয়েও উদ্বেগ প্রকাশ করে রাজন জানান, আগে করোনাভাইরাসের মোকাবিলা করতে হবে, তারপর অর্থনীতি নিয়ে চিন্তা-ভাবনা করা যাবে।

Comments
Loading...