ভারতে মহিলাদের উপর অত্যাচারের ঘটনা উদ্বেগজনক, বিদেশের মাটিতে দাঁড়িয়ে মন্তব্য রাহুল গান্ধীর

ভারতে মহিলাদের উপর অত্যাচারের ঘটনা উদ্বেগজনকভাবে বৃদ্ধি পাচ্ছে। বুধবার (ভারতীয় সময়ানুযায়ী বৃহস্পতিবার মধ্য রাত) জার্মানির হামবুর্গে এক অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখতে গিয়ে এই মন্তব্য করেছেন রাহুল গান্ধী। রাহুলের মতে, ভারতীয় পুরুষ সমাজ আজও মহিলাদের যে চোখে দেখেন, সেই দৃষ্টিকোণে বদল আনা উচিত। মহিলাদের প্রকৃত সম্মান দেওয়া ও সমান চোখে দেখা উচিত, কিন্তু দুর্ভাগ্যবশত যা হচ্ছে না। এই অনুষ্ঠানে রাহুলের আরও কটাক্ষ, দেশে গণপ্রহারের যে ঘটনা বাড়ছে, তা আসলে কাজ না পাওয়ার ক্ষোভের বহিঃপ্রকাশ। কিন্তু প্রধানমন্ত্রী এই বেকারত্বের সমস্যার দিকে নজর দিতে চাইছেন না। নোট বাতিল ও অপরিকল্পিতভাবে জিএসটি আসার ফলে ছোট ব্যবসা ধ্বংসের সম্মুখীন হয়েছে বলেও এদিন মন্তব্য করেন কংগ্রেস সভাপতি।
রাহুল এদিন বিদেশের মঞ্চে দাঁড়িয়ে বর্তমান বিজেপি সরকারের বিরুদ্ধে তোপ দেগে বলেন, বর্তমান সরকারের উন্নয়ন পরিকল্পনায় আদিবাসী, দলিত, সংখ্যালঘুদের কোনও জায়গা নেই। উন্নয়নের পরিকল্পনা থেকে তাঁদের সরিয়ে রাখা হয়েছে। এ বিষয়ে বলতে গিয়ে আইএসআইএস’এর প্রসঙ্গ টেনে রাহুল মন্তব্য করেন, কেউ যদি এভাবে উন্নয়ন পরিকল্পনা থেকে কোনও শ্রেণীকে সরিয়ে রাখে, তবে অন্য কোনও শক্তি তাঁদের কাছে টানতে অন্য পদক্ষেপ নিতে পারে, যা হয়তো সমাজ ও দেশের পক্ষে ভালো হবে না। রাহুলের এই মন্তব্যে বেজায় চটেছে বিজেপি। আইএসআইএস প্রসঙ্গ টানায় বিজেপির তরফে বলা হয়েছে, রাহুল গান্ধী আবারও পুরনো রাহুল হয়ে গেছেন। দেশ ও দেশের যোগ্যতা সম্পর্কে ভুল ধারণা রায়েছে তাঁর।
নিজের বাবা ও ঠাকুমার মৃত্যুর প্রসঙ্গ টেনে রাহুল বলেছেন, হিংসার জবাব পালটা হিংসা হতে পারে না, ক্ষমা করতে শেখাই হিংসার যোগ্য জবাব। তিনি বলেন, ‘ভারত বরাবর অহিংসার তত্ত্বে বিশ্বাসী যা ভারতীয়ত্বের আত্মার সঙ্গে জড়িত। তাই প্রধানমন্ত্রী আমাকে নিয়ে নানা কটূ মন্তব্য করলেও আমি তাঁর প্রতি ভালোবাসাই দেখিয়েছি।’

Comments
Loading...