অর্ণব-উদ্ধব ঠাকরে সংঘাত চরমে: রিপাবলিক টিভির ৫ বিনিয়োগকারীকে ডাকল মুম্বই পুলিশ

এবার রিপাবলিক টিভিতে বিনিয়োগকারীদের তলব করল মুম্বই পুলিশের স্পেশাল ইনভেস্টিগেশন টিম। শুক্রবার চ্যানেলের ৫ বিনিয়োগকারীকে ডেকে পাঠানো হয়েছে। টিআরপি জালিয়াতির তদন্ত করছে মুম্বই পুলিশের সিট। এই সংক্রান্ত বিষয়েই ৫ বিনিয়োগকারীকে জেরা করা হবে বলে জানা যাচ্ছে।

মুম্বই পুলিশ এর আগে অর্ণব গোস্বামীর রিপাবলিক টিভির চিফ ফিনান্সিয়াল অফিসার শিবা সুন্দরমকে জিজ্ঞাসাবাদ করেছে। টিআরপি জালিয়াতির অভিযোগে গ্রেফতার হয়েছেন ম্যাক্স মিডিয়া নামে একটি মার্কেটিং সংস্থার কর্ণধার অভিষেক কোলওয়াদে। পুলিশ সূত্রে দাবি, জেরার মুখে অভিষেক কোলওয়াদে স্বীকার করে নিয়েছেন রিপাবলিক টিভি সহ ২ টি চ্যানেলের কাছ থেকে টিআরপি বাড়িয়ে দেওয়ার শর্তে তিনি টাকা নিয়েছেন। সেই টাকা বার-ও-মিটার বসানো নির্দিষ্ট কিছু বাড়িতে ভাগ করে দেওয়া হয়েছে বলে সন্দেহ পুলিশের।

পাশাপাশি হংস গ্রুপের সঙ্গে রিপাবলিক টিভির আর্থিক লেনদেন নিয়েও তদন্ত করছে মুম্বই পুলিশ। BARC এর তরফে হংস রিসার্চ গ্রুপ বিভিন্ন বাড়িতে টিআরপি মাপার যন্ত্র বার-ও-মিটার ইনস্টলের দায়িত্বে আছে। অভিযোগ, হংস গ্রুপের সঙ্গেও আর্থিক লেনদেন হয়েছে অর্ণব গোস্বামীর চ্যানেলের। সিটের প্রশ্ন, হংস গ্রুপের সঙ্গে রিপাবলিক টিভির কীসের লেনদেন?

তবে শুধু রিপাবলিক টিভি নয়, বক্স সিনেমা, ফক্ত মারাঠি, নিউজ নেশন, মহা মুভি এবং ওয়াও চ্যানেলের বিরুদ্ধেও তদন্ত চালাচ্ছে মুম্বই পুলিশ। অভিযোগ, যে সব বাড়িতে বার-ও-মিটার লাগানো আছে সেখানে অর্থের বিনিময়ে নির্দিষ্ট চ্যানেলই সারাদিন ধরে চালিয়ে রাখা হোত। তাতে লাফিয়ে বৃদ্ধি পেত সংশ্লিষ্ট চ্যানেলের টিআরপি। মুম্বই পুলিশের সিটের বক্তব্য, সেই ব্যক্তিদের চিহ্নিত করাই এখন প্রধান কাজ। সেই সূত্রেই অর্ণব গোস্বামীর চ্যানেলের ৫ বিনিয়োগকারীকে সমন।

Comments
Loading...