ফের মূর্তি বিতর্কঃ প্যাটেলের মূর্তিকে উচ্চতম দেখাতে বিজেপি সরকার বদল করেছে শিবাজির স্ট্যাচুর নকশা, অভিযোগ শিবসেনার

সর্দার বল্লভ ভাই প্যাটেলের স্ট্যাচু অব ইউনিটিকে পৃথিবীর উচ্চতম মূর্তি হিসেবে তুলে ধরতেই আরব সাগরের তীরে ছত্রপতি শিবাজির স্ট্যাচুর নকশা বদল করা হয়েছে বলে অভিযোগ করল শিবসেনা। মহারাষ্ট্রে বিজেপির মুখ্যমন্ত্রী দেবেন্দ্র ফড়নবিসকে এজন্য আক্রমণও করা হয়েছে শিবসেনার পক্ষ থেকে। এই ইস্যুতে প্রধানমন্ত্রী মোদী বা অমিত শাহকে ‘ভয়’ পাওয়ার কিছু নেই বলেও মুখ্যমন্ত্রীকে কটাক্ষ করেছে শিবসেনা।
শিবসেনার দাবি, সর্দার বল্লভভাই প্যাটেলের মূর্তিকে পৃথিবীর উচ্চতম মূর্তি হিসেবে দেখানোর জন্য ‘মহারাজ’ শিবাজির স্ট্যাচুর প্রস্তাবিত নকশা ছেঁটে উচ্চতা কমানো হচ্ছে।
শিবসেনার মুখপত্র ‘সামনা’তে বিজেপির এই ভাবনাকে ‘সংকীর্ণ’ ও ‘বিকৃত মানসিকতার প্রকাশ’ বলে উল্লেখ করা হয়েছে। শিবাজির মূর্তিকে উচ্চতম হিসেবে গড়তে সব রাজনৈতিক দলকে ঐক্যবদ্ধ হওয়ার ডাক দিয়েছে শিবসেনা। শিবসেনা প্রধান উদ্ভব ঠাকরের বক্তব্য, মহারাষ্ট্র ও মুম্বইয়ের অখণ্ডতা রক্ষায় তৎকালীন নেহরু সরকারের সঙ্গে কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী চিন্তামন রাও দেশমুখ যেমনভাবে লড়েছিলেন, তেমনই সবাইকে এককাট্টা করে শিবাজি মূর্তি নিয়ে দেবেন্দ্র ফড়নবিসের উচিত লড়াই করা।
২০১৬ সালে দেবন্দ্র ফড়নবিস সরকার আরব সাগরের তীরে শিবাজির ১৯২ মিটার উচ্চতার স্ট্যাচু তৈরি করার কাজ শুরু করে। স্ট্যাচু তৈরিতে আনুমানিক বাজেট ধার্য হয় ২ হাজার কোটি টাকা।
১৯৮০ সাল থেকে এই ‘প্রজেক্ট’ শুরু করার কথা ভাবা হলেও তা আলোচনার স্তরেই থেকে যায়। ২০০৪ সাল নাগাদ তৎকালীন কংগ্রেস-এনসিপি সরকার নতুন করে এই প্রজেক্টে হাত দেয়। গঠিত হয় একটি এক্সপার্ট কমিটি। কিন্তু ‘অজানা কারণে’ সে কাজ শুরু হয়নি। এরপর দেবেন্দ্র ফড়নবিস সরকার এই প্রজেক্টের কাজে হাত দেয়। প্রথম থেকেই ফড়নবিস সরকারের এই প্রজেক্টকে সাধুবাদ জানিয়ে পাশে ছিল শিবসেনা।
তাই হঠাৎ করে প্রস্তাবিত নকশাকে কাটছাঁট করাকে শিবসেনা ভালো চোখে দেখছে না।
প্রশাসনিক সূত্রে খবর, বেদি নিয়ে যে কাঠামোর উচ্চতা ১৯২ মিটার ছিল, সেখানে শিবাজির মূল মূর্তির উচ্চতার নকশা ৮৩.২ মিটার থেকে কমিয়ে ৭৫.৭ মিটার করা হয়েছে। এবং তা করা হয়েছে বল্লভ ভাই প্যাটেলের মূর্তিকে উচ্চতম তকমা দিতে। সূত্রের খবর, শিবাজির হাতে থাকা তলোয়ারের দৈর্ঘ্য অবশ্য ৩৮ মিটার থেকে বাড়িয়ে ৪৫.৫ মিটার করা হবে। আর এতে সাশ্রয় হবে ৩৩৮.৯৪ কোটি টাকা। প্রসঙ্গত, গত ৩১ শে অক্টোবর গুজরাতে নর্মদার তীরে পৃথিবীর উচ্চতম স্ট্যাচুর উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী।

Comments
Loading...