সুজাতা খাঁ: কে বলতে পারে আগামী দিনে সৌমিত্র খাঁও তৃণমূলে ফিরবেন না!

স্ত্রী তৃণমূলে ফিরলেন। এবার কি স্বামীর পালা? বাঁকুড়ার বিষ্ণুপুরের বিজেপি সাংসদ সৌমিত্র খাঁয়ের স্ত্রী তৃণমূলে যোগ দিতেই এই জল্পনা মাথাচাড়া দিয়েছে। জল্পনা উড়িয়ে দেননি সুজাতা নিজেও। তৃণমূল ভবনের সাংবাদিক সম্মেলনে সুজাতা মণ্ডল খাঁ বলেন, কে বলতে পারে আগামী দিনে সৌমিত্র খাঁও তৃণমূলে ফিরবেন না?

যুব তৃণমূলের সভাপতি ছিলেন শুভেন্দু অধিকারী। তাঁকে সরিয়ে সেই পদে বসেন সৌমিত্র খাঁ। কিন্তু লোকসভার আগে তিনি বিজেপিতে যোগ দেন। আদালতের নির্দেশে সৌমিত্র খাঁ ঢুকতে পারেননি নিজের কেন্দ্রে। তাই কার্যত স্বামীর হয়ে গোটা লোকসভা চষে বেড়ান সৌমিত্র জায়া সুজাতা। ভোটে জেতেন সৌমিত্র। তাঁকে যুব মোর্চার সভাপতি করে বিজেপি। কিন্তু সমস্যা শুরু হয় তারপর।

বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষের সঙ্গে সৌমিত্রর বিবাদ বেঁধে যায়। একাধিকবার সৌমিত্র খাঁয়ের কমিটি ভেঙ্গে দেন দিলীপ ঘোষ। বিজয়ার সময় সেই বিবাদ মিটেছে বলে মনে করা হলেও কিছুদিনের মধ্যেই আবার সৌমিত্র খাঁয়ের কাছের লোকজনকে সরিয়ে দেওয়া হয় যুব মোর্চার বিভিন্ন পদ থেকে। তাতে নতুন করে জল্পনা দানা বাঁধে। এবার বিষ্ণুপুরের বিজেপি সাংসদের স্ত্রী সুজাতা মণ্ডল খাঁ বিজেপি ছেড়ে যোগ দিলেন তৃণমূলে। আর যোগ দিয়েই তাঁর তাৎপর্যপূর্ণ মন্তব্য, কে বলতে পারে আগামী দিনে সৌমিত্র খাঁও নিজের পুরনো দলে ফিরবেন না। মনে রাখবেন দিনের শেষে সম্মানটাই আসল।

বিজেপিতে সম্মান না পাওয়ার কথাও এদিন বারবার বলতে শোনা গেছে সুজাতা খাঁকে। রাজনৈতিক পর্যবেক্ষকদের মতে, শুধু মাত্র স্ত্রী ক্ষুব্ধ, সৌমিত্র খুশি, এমন সরল সমীকরণ নয়। তাই আগামী দিনে সৌমিত্র খাঁ কী করেন, সেটাই দেখার।

Comments
Loading...