লকেটের পদ্ম ত্যাগ নিয়ে ‘আশাবাদী’ কুণাল,ভবানীপুরে প্রচারে না থাকার জন্য বিজেপি সাংসদকে ট্যুইটে ধন্যবাদ তৃণমূল মুখপাত্রের  

দিন কয়েক আগে উপনির্বাচনের প্রচারে বেরিয়ে পরিবহনমন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম দাবি করেছিলেন, বিজেপির একজন বড় নাম তৃণমূলে আসছেন। বড় নামটি কার তাই নিয়ে নানান জল্পনা শুরু হয়েছে। আর এর মধ্যেই সোমবার কুণাল ঘোষের ট্যুইটে সেই ‘বড় নামে’র ইঙ্গিত মিলেছে বলে মনে করছে রাজনৈতিক মহলের একাংশ। যা নিয়ে রাজ্য রাজনীতিতে তুঙ্গে জল্পনা। 

হুগলির বিজেপি সাংসদ লকেট চ্যাটার্জি কি তবে তৃণমূলে আসছেন? সোমবার তৃণমূল মুখপাত্রের ট্যুইট ঘিরে তেমনই সম্ভবনা শুরু হয়েছে। ভবানীপুরে বিজেপির তারকা প্রচারকের তালিকায় লকেটের নাম থাকা সত্ত্বেও তাঁকে প্রচারে দেখা যায়নি। যার জন্য, বিজেপি সাংসদকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন কুণাল। তিনি লেখেন, বিজেপির পক্ষ থেকে অনুরোধ সত্ত্বেও আপনি প্রচারে যাননি। বন্ধু হিসেবে আপনাকে অনেক শুভেচ্ছা। 

এখানেই না থেমে তৃণমূল রাজ্য সম্পাদকের বিস্ফোরক দাবি, পৃথিবীটা খুবই ছোটো। আশা করবো, সেই দিনগুলো আবার ফিরে আসবে, যখন আপনি আপনার রাজনৈতিক জীবন আবার শুরু করবেন। 

উল্লেখ্য লকেট চ্যাটার্জির রাজনীতিতে প্রবেশ ঘাসফুল শিবিরের হাত ধরেই। ২০১১ সালে তৃণমূল ক্ষমতায় ফেরার পর শাসকদলে যোগ দেন লকেট। কুনাল ঘোষের হাত ধরেই তৃণমূলে নাম লেখান তিনি। ২০১৫ সালে তিনি বিজেপিতে যোগ দেন। রাজনৈতিক পর্যবেক্ষকদের মতে, কুণাল ঘুরিয়ে সেই প্রসঙ্গই তুলেছেন। যার জেরেই অনেকের মতে, বাবুল সুপ্রিয়র পরে এবার বিজেপির আর এক হেভিওয়েট সাংসদ তৃণমূলে যোগ দিতে চলছেন। 

কয়েকদিন আগেই লকেটের দলবদল নিয়ে গুঞ্জন শুরু হয়। জল্পনার মাঝেই বিজেপির সর্ব ভারতীয় সভাপতি জেপি নাড্ডার সঙ্গে বৈঠক করেন তিনি। দলবদল প্রসঙ্গে জল্পনা উড়িয়ে তিনি দাবি করেছিলেন, তাঁকে নিয়ে ভুয়ো খবর ছড়ানো হচ্ছে। 

যদিও পর্যবেক্ষকদের মতে, ভবানীপুরে তারকা প্রচারকের তালিকায় নাম থাকা সত্ত্বেও প্রচারে তাঁর না থাকা অত্যন্ত তাৎপর্পূর্ণ।

Comments
Loading...