অভিষেকের ‘ঘুষখোর’ মন্তব্যের জবাব দিলেন শুভেন্দু! তীব্র আক্রমণ অভিষেক ও তাঁর পরিবারকে

অভিষেকের স্ত্রীর ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্ট নিয়ে প্রশ্ন তুললেন শুভেন্দু

রবিবার দক্ষিণ ২৪ পরগনার কুলতলির সভা থেকে অভিষেক ব্যানার্জি তীব্র আক্রমণ করেছিলেন দলত্যাগী নেতা শুভেন্দু অধিকারীকে। ২৪ ঘণ্টার মধ্যেই সোমবার তমলুকের সভা থেকে তার জবাব দিলেন সদ্য বিজেপিতে যোগ দেওয়া শুভেন্দু অধিকারী।

এদিন তমলুকের সভামঞ্চ থেকে তৃণমূল সাংসদ ও দলের যুব সভাপতি অভিষেক এবং তাঁর স্ত্রীর বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগ আনেন তিনি। অভিষেকের ঘুষখোর উক্তির জবাব দিতে গিয়ে শুভেন্দু বলেন, ‘গতকাল তোলাবাজ ভাইপো বলেছে শুভেন্দু ঘুষখোর, মুধুখোর। কিন্তু ও তো ছোটবেলা থেকে হাত পাকিয়েছে কীভাবে চিটিংবাজি করা যায় তাতে।’ শুভেন্দুর অভিযোগ, অভিষেক এবং তাঁর পরিবারের থাইল্যান্ডের ব্যাংকে অ্যাকাইন্ট আছে। অভিষেকের স্ত্রীর নাম না করে নন্দীগ্রামের প্রাক্তন বিধায়কের কটাক্ষ, ‘ম্যাডাম নারুলা কে? কার অ্যাকাউন্টে লালার টাকা যায়?’

সুদীপ্ত সেনের বিতর্কিত চিঠি প্রসঙ্গে বলতে গিয়ে তাঁর চাঞ্চল্যকর অভিযোগ, অভিষেকের নির্দেশেই জেলে সুদীপ্ত সেনকে দিয়ে ওই চিঠি লেখানো হয়। নারদ স্টিং অপারেশন সম্পর্কে শুভেন্দুর সংযোজন, ‘নারদকে টাকা দিয়েছিল কেডি সিংহ, আর কেডিকে লাগিয়েছিল তোলাবাজ ভাইপো। এমনকী নারদ প্রসঙ্গে একাধিক তৃণমূল নেতার নাম করেও এদিন চাঁচাছোলায় ভাষায় আক্ৰমণ করেন তিনি।  অভিষেকের এমবিএ ডিগ্রিটি ভুয়ো বলেন এদিন কটাক্ষ করেন শুভেন্দু।

বিজেপি নেতা ও কর্মীদের মিথ্যে মামলায় ফাঁসানোর অভিযোগ এনে এদিন পুলিশ প্রশাসনকেও একহাত নেন প্রাক্তন তৃণমূল নেতা। হুগলিতে তৃণমূল নেত্রীর সভার বক্তব্যের প্রসঙ্গ টেনে এনে শুভেন্দুর কটাক্ষ, আগে তৃণমূল চাল চুরি করত, এখন স্লোগান চুরি করছে।

তবে তাৎপর্যপূর্ণভাবে এদিন শুভেন্দুর গলায় সিপিএম নেতা বিমান বসুর প্রশংসা শোনা যায়।

Comments
Loading...