ইডি নোটিসের খবর মিথ্যে, বাবা রাজনীতিবিদ বলেই আমাকে হেনস্থা, বললেন ফিরহাদ কন্যা

আনন্দবাজার পত্রিকায় আমাকে ইডির সমন দেওয়া সংক্রান্ত যে প্রতিবেদন প্রকাশ হয়ে তা সম্পূর্ণ ভুল এবং ভিত্তিহীন। ফিরহাদ হাকিমের মেয়ে প্রিয়দর্শিনী ফেসবুকে পোস্ট করে জানালেন এই কথা। পাশাপাশি ফেসবুক পোস্টে প্রিয়দর্শিনী হাকিম লেখেন, আমার বাবা একজন রাজনীতিবিদ, বাবাকে অপমান করার জন্যই মিথ্যা মামলার প্রচার করা হচ্ছে।

ঘটনার সূত্রপাত সোমবার সকালে। অভিষেক ব্যানার্জির স্ত্রী ও শ্যালিকাকে সিবিআই নোটিসের আবহে বিদেশে অর্থ পাচার সংক্রান্ত মামলায় ফিরহাদ কন্যা প্রিয়দর্শিনীকে নোটিস পাঠিয়েছে ইডি, এই খবর প্রকাশিত হয়। কিন্তু ফিরহাদ দাবি করেন এমন কোনও নোটিস তাঁর মেয়ে পাননি। তার কিছুক্ষণের মধ্যেই প্রিয়দর্শিনী হাকিম নিজের ফেসবুকে ওয়ালে একটি পোস্ট করেন। তাতে তিনি লেখেন, ইডির নোটিসের খবর মিথ্যে। বাবা রাজনীতিবিদ বলেই তাঁকে বেকায়দায় ফেলতে আমাকে মাঝখানে টেনে হেনস্থা করা হচ্ছে।

[আরও পড়ুন- অভিষেকের মানহানি মামলার সমনে অমিত শাহের ঠিকানা ভুল, মামলা ফেরাল এমপি-এমএলএ আদালত]

কারণ সন্তানদের কিছু হলে সবচেয়ে বেশি চিন্তায় থাকেন মা-বাবা। তারপরই তাৎপর্যপূর্ণ ভাবে ফিরহাদ কন্যা লিখেছেন, কেন্দ্রীয় সরকার বিরোধীদের হেনস্থা করার জন্য বিভিন্ন এজেন্সিকে কাজে লাগাচ্ছে।

শেষে প্রিয়দর্শিনী হাকিম জানিয়েছেন, তাঁর বাবা অত্যন্ত সৎ ব্যক্তি এবং দেশ তথা পশ্চিমবঙ্গের মানুষের উন্নতি কামনায় উৎসর্গীকৃত। আমার বাবাকে অনেকবার ষড়যন্ত্র এবং বিতর্কের মধ্যে টেনে আনার চেষ্টা করা হয়েছে। বাংলার মানুষ সত্যিটা জানেন। লেখেন প্রিয়দর্শিনী হাকিম।

অভিষেক ব্যানার্জির বাড়িতে সিবিআই নোটিসের প্রেক্ষিতে ইতিমধ্যেই তোলপাড় রাজ্য রাজনীতি। এমন সময় ফিরহাদ হাকিমের মেয়ের বিরুদ্ধে আর্থিক অসঙ্গতির অভিযোগ তোলাকে অত্যন্ত তাৎপর্যপূর্ণ বলে মনে করছেন রাজনৈতিক পর্যবেক্ষকরা। এদিকে ফিরহাদ হাকিম জানিয়েছেন এমন কোনও নোটিস তাঁরা পাননি। মিথ্যে প্রচার করলে মানহানির মামলা করার কথাও বলেছেন ফিরহাদ হাকিম।

Comments
Loading...