পূর্ব মেদিনীপুরে বজ্রপাতে মৃতদের পরিবারের হাতে আর্থিক সহায়তা তুলে দিলেন কাকলি, মানস

সোমবার বিকেলে হঠাৎ ঝড় বৃষ্টি, আর সঙ্গে মুহুর্মুহু বজ্রপাত। আর তাতেই মৃত্যু হল কমপক্ষে ২৭ জন রাজ্যবাসীর।

এই মর্মান্তিক দুর্ঘটনার পরেই রাজ্য সরকারের তরফে মৃতদের পাশে থাকার বার্তা দেওয়া হয়েছিল।

ঘোষণা মোতাবেক বুধবার পূর্ব মেদিনীপুরের খেজুরির কমলদান গ্রামে নিহত দীপক গিরির বাড়ি যান তৃণমূল নেতৃত্বের একটি দল। নিহতের বাড়ির লোকের সঙ্গে কথা বলেন তৃণমূল সাংসদ কাকলি ঘোষ দস্তিদার, মন্ত্রী মানস ভূঁইয়া,পূর্ব মেদিনীপুরের জেলা সভাপতি তথা মন্ত্রী সৌমেন মহাপাত্র, এবং প্রতিমন্ত্রী অখিল গিরি।

রাজ্য সরকারের পক্ষ থেকে মৃত দীপক গিরির পরিবারের হাতে আর্থিক সাহায্য তুলে দেন মৎসমন্ত্রী অখিল গিরি। মুখ্যমন্ত্রীর শোকবার্তাও দেওয়া হয় পরিবারকে। সেই সঙ্গে তৃণমূলের পক্ষ থেকে মৃতের ছেলে মেয়ের পড়াশোনার সমস্ত খরচ বহন করা হবে বলেও পরিবারকে আশ্বাস দেন নেতৃত্ব।

এছাড়াও পূর্ব মেদিনীপুরের ময়না থানায় বাজ পড়ে এক তরুণীর মৃত্যু হয়। নিহতের নাম শম্পা মন্ডল। ঝড় বৃষ্টিতে বাড়ির সামনে পানের বরজে ত্রিপল ঢাকা দিতে গিয়ে বজ্রাঘাতে প্রাণ হারান শম্পা মন্ডল।

মৃতের পরিবারের সঙ্গে মানস ভূঁইয়া, সৌমেন মহাপাত্র, কাকলি ঘোষ দস্তিদার দেখা করেন। রাজ্য সরকারের পক্ষ থেকে দু’লক্ষ টাকা তুলে দেওয়া হয় পরিবারের হাতে। দলের তরফে সব রকমের সাহায্যে পাশে থাকার আশ্বাস দেওয়া হয়। শম্পার সন্তানদের পড়াশুনার দায়িত্বও দলের তরফে নেওয়া হবে বলে জানান তৃণমূল নেতৃত্ব।

Comments
Loading...